নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৮ নভেম্বর ২০১৪, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২১, ২৪ মহররম ১৪৩৬
বাজেটে শিশুদের জন্য সুনির্দিষ্ট অর্থ বরাদ্দের সুপারিশ
স্টাফ রিপোর্টার
জাতীয় বাজেটে শিশুদের জন্য সুনির্দিষ্টভাবে অর্থ বরাদ্দ রাখার সুপারিশ করেছে ১০টি উন্নয়ন সংগঠন নিয়ে গঠিত শিশু অধিকার এডভোকেসি কোয়ালিশন বাংলাদেশ। গতকাল সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এই সুপারিশ করা হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে কোয়ালিশনে থাকা বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার প্রাথমিক শিক্ষায় ভর্তির ক্ষেত্রে সফলতা দেখালেও এখনও স্কুল থেকে পঞ্চম গ্রেডে ঝরে পড়ার হার শতকরা ৪৫ ভাগ। গত কয়েক বছরের জাতীয় বাজেটে শিশুদের জন্য অর্থ বরাদ্দ কম ছিল, যা এই ৪৫ ভাগ শিশুর জন্য যথেষ্ট নয়। এছাড়াও শিশুদের জন্য নির্দিষ্ট কোন মন্ত্রণালয় বা অধিদফতর নেই। নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় থাকলেও সেখানে শিশু অধিকার রক্ষায় নির্দিষ্ট কোন ডেস্ক নেই। শিশু অধিকার সুরক্ষায় বাংলাদেশ সরকার যে সকল আইন ও নীতিমালা প্রণয়ন করেছেন সেগুলো বাস্তবায়নে সরকারের পক্ষ থেকে আমরা তেমন কোন বরাদ্দ জাতীয় বাজেটে দেখি না। এছাড়াও জনবল ও আর্থিক সীমবদ্ধতার কারণে কমিউনিটি পর্যায়ে শিশু সরক্ষা বেষ্টনী সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারছে না। বাংলাদেশ বিবিএস ২০০২-৩ এর প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে তারা বলেন, দেশে ৭৯ লাখ শিশু বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত যাদের বয়স ৫ থেকে ১৭ বছরের মধ্যে এবং এসব শিশুর অধিকাংশই প্রাথমিক শিক্ষাকোর্স সমাপ্ত করতে পারে না। শিশু অধিকার কনভেনশন, শিশু আইন ২০১৩ এবং জাতীয় শিশু শ্রম নিরোধ নীতিমালা ২০১০ অনুযায়ী এসকল শিশুদের স্কুলে থাকা বাঞ্ছনীয়।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশে শিশু বিবাহের হার ৬৬ শতাংশ এবং এসব শিশুর অধিকাংশই মেয়ে। এই শিশুদের ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগেই বিয়ে হয়ে যাওয়ার ফলে তারা তাদের শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং সেই সাথে দেশে অপুষ্ট শিশুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিডিএইচএস ২০১১ প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে অপুষ্টির হার শতকরা ৪১ শতাংশ এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের স্থান সর্বপ্রথম। শিশু বিবাহ বন্ধে সরকারের পক্ষ থেকে সুদূরপ্রসারী কোন কার্যক্রম আমরা দেখি না। এই মুহূর্তে বাংলাদেশে ৮৫ বছরের একটি পুরনো আইন রয়েছে যা শিশু বিবাহ বন্ধ করার জন্য যথেষ্ট নয়। তবে আশার বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশ সরকার আইনটি নতুনভাবে তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে।

এসময় সাংবাদিক সম্মেলনে শিশুদের জন্য আরো কিছু সুপারিশ তুলে ধরা হয়। সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- প্রয়োজনীয় জনবল ও অর্থ বরাদ্দসহ শিশুদের জন্য একটি বিভাগ স্থাপন, শিশু বিবাহ নিরোধ আইন ২০১৪ চলতি বছর পাস, এমডিজি ২০১৫ পরবর্তী উন্নয়ন লক্ষ্যে শিশু সুরক্ষা ও উন্নয়ন সম্পর্কিত একটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য যুক্ত, শিশু সুরক্ষা সম্পর্কিত বিষয়গুলো পঞ্চম গ্রেড হতে দ্বাদশ গ্রেড পর্যন্ত শিক্ষা কারিকুলামে অন্তর্ভুক্তি ইত্যাদি।

শিশু অধিকার এডভোকেসি কোয়ালিশন বাংলাদেশ'র ১০টি সংগঠন হলো- একশন এইড বাংলাদেশ, আইন ও সালিশ কেন্দ্র, এডুকো, প্লান ইন্টারন্যাশনাল, সেভ দি চিলড্রেন, বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম, চাইল্ড রাইটস গভর্নেন্স নেটওয়ার্ক, টেরে ডেস হোমস নেদারল্যান্ডস, জাতীয় কন্যা শিশু এ্যাডভোকেসি ফোরম এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- প্লান ইন্টারন্যাশনাল'র উপদেষ্টা এস এম রশিদ, বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরামের পরিচালক আব্দুস শহীদ মাহমুদ, টেরে ডেস হোমস নেদারল্যান্ডস'র কাণ্ট্রিডিরেক্টর মাহমুদুল কবির, জাতীয় কন্যা শিশুর উপদেষ্টা নাসিমা আক্তার জলি, ওয়ার্ল্ড ভিশনের ম্যানেজার সাবিনা নুপুর প্রমুখ।

Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 26 file is encrypted or is not a database' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7