নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২ জুন ২০১৬, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৩, ২৫ শাবান ১৪৩৭
৬ মাসেও যশোরে কলেজছাত্র খুনের আসামিরা গ্রেফতার হয়নি বাদী নিরাপত্তাহীনতায়
যশোর প্রতিনিধি
যশোরের কলেজ ছাত্র সবুজ হোসেন হত্যা মামলার আসামিরা দীর্ঘ ৬ মাসেও গ্রেফতার হয়নি। পুলিশ প্রশাসনের সামনে আসামি ঘুরে বেড়ালেও তাদেরকে আটক করা হচ্ছে না। উল্টো মামলা তুলে নিতে বাদী পক্ষকে প্রতিনিয়ত হুমকি-ধামকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা। বর্তমানে মামলার বাদী মর্জিনা বেগম তার চার বছরের ছেলেকে নিয়ে জীবনাশের আশঙ্কায় ভুগছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি। হত্যাকান্ডর বিচারের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে সভা-সমাবেশ, মানববন্ধন, সাংবাদিক সম্মেলন, স্মারকলিপি দিয়েছে সবুজের স্বজনরা। তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

মামলার বাদী মর্জিনা বেগম জানান, তার স্বামী যশোরের মণিরামপুর উপজেলার ডুমুরখালি গ্রামের আকবর আলী মোড়ল। তিনি মালয়েশিয়া প্রবাসী। তার বড় ছেলে ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া কলেজের একাদশ শ্রেনীর মেধাবী শিক্ষার্থী সবুজ হোসেন। গত বছর ১২ ডিসেম্বর ডুমুরখালি বাজারে প্রকাশ্যে দিবালোকে সবুজকে একই এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী মনিরুজ্জামান মুকুলের নেতৃত্বে জসিম উদ্দিন, সদর উদ্দিন, বুলু বিশ্বাস দেশিও অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে হত্যাকারীদের পালিয়ে যেতে সহায়তা করে একই এলাকার দুর্বৃত্ত শাহাজামাল, বাবলু, আকবর, রাজু ও আনিচুর। হত্যাকান্ডের দুই দিন পর (১৪ ডিসেম্বর) মর্জিনা খাতুন বাদী হয়ে মণিরামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। কিন্তু মণিরামপুর থানার ওসি তাহেরুল ইসলাম ও ওসি (তদন্ত) এ এইচ এম লুৎফুল কবীর ঘটনার মূল নায়ককে এজাহার থেকে বাদ দিয়ে মামলা রেকর্ড করেন। এরপর পুলিশ আসামিদের নিয়ে বিভিন্ন স্থানে মিটিং করেন। তাদেরকে এ মামলা থেকে রেহাই দিবেন বলে জানায়। এ ঘটনা বাদী জানতে পেরে মামলাটি পুলিশ থেকে সিআইডিতে হস্তন্তরের দাবি জানায়। চলতি বছর ফ্রেব্রুয়ারি মাসে মামলাটি সিআইডিতে চলে যায়। দীর্ঘ ৬ মাস পারও হলেও পুলিশ কোনো আসামিকে আজ পর্যন্ত আটক করতে পারেনি। উল্টো আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশ প্রশাসন সব কিছু জেনেও আসামিদের আটক করছে না।

তিনি বলেন, আসামিরা যখন যে এলাকায় অবস্থান করছে তা সব সময় পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ আসামিদের আটকের জন্য কোনো অভিযান চালায়নি। যে কারণে আসামিরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। তারা আবারও বড় ধরনের কোনো অঘটন ঘটাাতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বাদী।

এদিকে, আসামিরা মামলা তুলে নিতে বাদীকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। এমনকি তার ছোট ছেলেকেও একই ভাবে দেখে নেবে বলে প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছে। বর্তমানে বাদী তার চার বছরের ছোট ছেলেকে নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় জীবন যাপন করছেন।

মর্জিনা বেগম তার ছেলে হত্যার বিচার দাবি করে বলেন, তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তার ছেলেকে যারা হত্যা করেছে আইনের মাধ্যমে তাদের শাস্তি হোক।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির এসআই ইমদাদুল হক জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। আসামিরা চিহ্নত হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া মামলার বিষয়ে বাদী কিছু অভিযোগ রয়েছে। সেগুলোও তদন্ত করা হচ্ছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২২
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৯০৪০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.