নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১১ মে ২০১৬, ২৮ বৈশাখ ১৪২৩, ৩ শাবান ১৪৩৭
রিজার্ভ চুরিতে বাংলাদেশের অভিযোগ অস্বীকার সুইফটের
অর্থনৈতিক রিপোর্টার
সুইফট কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই রিজার্ভের অর্থ চুরিতে হ্যাকাররা বাড়তি সুবিধা পেয়েছিল- বাংলাদেশের এমন অভিযোগের কথা অস্বীকার করে সুইফট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রিজার্ভ চুরির ঘটনার দায় নেবে না সুইফট।

ব্রাসেলস্ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, অন্য ব্যবহারকারীর মতই বাংলাদেশ ব্যাংককেও সুইফটের সঙ্গে যুক্ত প্লাটফর্ম এবং সংশ্লিষ্ট পরিবেশের নিরাপত্তার দায়িত্ব সম্পূর্ণ নিজেদেরই নিতে হবে। প্রাথমিক পাসওয়ার্ড নিরাপত্তা থেকে শুরু করে অন্যান্য অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ব্যবস্থাও এর অন্তর্ভুক্ত। গত সোমবার সুইফটের এই বিবৃতির উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। বিবৃতিতে সুইফটের পক্ষ থেকে বলা হয়, আন্তর্জাতিক আন্তঃব্যাংক লেনদেনের এ সেবা অনেক ব্যাংক ব্যবহার করছে। এ কারণে নিরাপত্তা বলয় ভেঙ্গে সুইফট নেটওয়ার্কে হ্যাকারদের অনুপ্রবেশ এবং অর্থ চুরির এ ঘটনার সম্পূর্ণ দায় বাংলাদেশ ব্যাংককেই নিতে হবে।

এর আগে সিআইডির অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক শাহ আলম রয়টার্সের কাছে বলেছিলেন, রিজার্ভ চুরির ঘটনার তিন মাস আগে বাংলাদেশ ব্যাংককে প্রথমবারের মতো 'রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট সিস্টেম'-এর সঙ্গে যুক্ত করেন সুইফটের টেকনিশিয়ানরা। ঐ সময় তাদের অবহেলায় অনেকগুলো লুপহোল (ছিদ্রপথ) তৈরি হয়েছে। তাদের কাজের সময়ই বাংলাদেশ ব্যাংকের ঝুঁকি অনেক বেশি বেড়ে গেছে। তিনি আরও জানান, 'রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট সিস্টেমে' যুক্ত করতে নিরাপত্তা নিশ্চিতে যে প্রক্রিয়াগুলো সুইফট নির্ধারণ করে দিয়েছিল- তা সম্পূর্ণভাবে অনুসরণ করেননি সুইফটের টেকনিশিয়ানরা। ফলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুইফট মেসেজিং প্ল্যাটফর্মে প্রবেশ সহজ হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ পুলিশের বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সুইফট প্ল্যাটফর্মের সাইবার নিরাপত্তার জন্য ফায়ারওয়ালের পরিবর্তে সাধারণ সুইচ ব্যবহার করেছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

উল্লেখ্য, গত ৫ ফেব্রুয়ারি সুইফট সিস্টেম ব্যবহার করে ৩৫টি ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে সংরক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৯৫ কোটি ১০ লাখ ডলার সরানোর চেষ্টা করা হয়। এর মধ্যে চারটি মেসেজের মাধ্যমে ফিলিপাইনের রিজল ব্যাংকে সরিয়ে নেয়া হয় ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার। আরেকটি মেসেজের মাধ্যমে শ্রীলঙ্কার একটি এনজিওর (শালিকা ফাউন্ডেশন) নামে ২ কোটি ডলার সরিয়ে নেয়া হলেও 'ফাউন্ডেশন'র স্থলে 'ফান্ডেশন' বানান ভুলজনিত সন্দেহের কারণে শেষ মুহূর্তে তা আটকে যায়। ইতিহাসের অন্যতম বড় এই সাইবার জালিয়াতির ঘটনা জানাজানির পর বিশ্বজুড়ে আলোড়ন তৈরি হয়। রিজার্ভ চুরির ঘটনায় গত ১৫ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান পদত্যাগ করেন। একই সঙ্গে দুজন ডেপুটি গভর্নরকেও দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয় সরকার। ঐ দিনই এই ডলার চুরি যাওয়ার বিষয়টি তদন্তের জন্য সাবেক গভর্নর ড. ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে ৩০ দিনের মধ্যে অন্তর্বর্তী প্রতিবেদন এবং ৭৫ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দিতে সময় বেধে দেয়া হয়। ড. ফরাসউদ্দিন এরইমধ্যে অন্তর্বর্র্তী প্রতিবেদন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে জমা দিয়েছেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৫
ফজর৪:৪৪
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৭
মাগরিব৫:২৮
এশা৬:৪১
সূর্যোদয় - ৬:০০সূর্যাস্ত - ০৫:২৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৭৮৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.