নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২৯ আশ্বিন ১৪২৮, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩
আমতলী সরকারি কলেজে শিক্ষক সঙ্কট পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত
আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি
শিক্ষক সংকটে আমতলী সরকারি কলেজের পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। ২২ বিষয়ের ৮ বিষয়ে শিক্ষক নেই। ৮ বিষয়ের শিক্ষক না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে পাঠদান বন্ধ রয়েছে। কলেজে অধ্যক্ষ, শিক্ষক, কর্মচারী ও অফিস সহায়কসহ ৪৪ জনের পদ থাকলেও কর্মরত আছেন মাত্র ২২ জন। অর্ধেক পদ অর্থাৎ ২২ জনের পদ শূন্য। অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারী চেয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে আবেদন করেও প্রতিকার পাচ্ছেন না কলেজ কর্তৃপক্ষ। এতে শিক্ষার্থীদের পা.দান ও কলেজের কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। দ্রুত অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারী দেয়ার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, ১৯৬৯ সালে আমতলী উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে শিক্ষানুরাগী সাবেক এমপিএ আলহাজ মো. মফিজ উদ্দিন তালুকদার কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠালগ্নে অল্প শিক্ষার্থী দিয়ে কলেজের পা.দান শুরু হলেও বেশি দিন তা অব্যাহত থাকেনি। দিন দিন প্রসার ঘটতে থাকে কলেজের। মানসম্মত পা.দান দেয়ার ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল কলেজটিকে জাতীয়করণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয়করণ হওয়ার পরপরই শিক্ষকরা অবসরে যান। ওই সময় থেকেই শিক্ষক সংকট দেখা দেয়। বর্তমানে কলেজটি চরম শিক্ষক সংকট রয়েছে। বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগে কলেজে স্নাতক, একাদ্বশ ও দ্বাদশ শ্রেণীতে দুই হাজার সাতশ ৩৬ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

কলেজের ২২টি বিষয়ের পা.দান হয়। জাতীয়করণের পর থেকে এ ২২ বিষয়ের মধ্যে ৮টি বিষয়ের শিক্ষক নেই। শিক্ষক না থাকায় ৮ বিষয়ে পা.দান বন্ধ রয়েছে। আবশ্যিক বিষয় বাংলার শিক্ষক মোসা. রেহেনা খানম ২০১৬ সালে অবসরে গেছেন। ওই সময়ে থেকে এ বিষয়ের শিক্ষক নেই। গত ১ অক্টোবর আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার অবসরে যান। গত ১৫ বছর ধরে ফিন্যান্স ও মার্কেটিং বিষয়ের শিক্ষক নেই। ২০১৯ সাল থেকে ইসলামের ইতিহাস, ইতিহাস, অর্থনীতি, পৌরনীতি ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ের শিক্ষক নেই। লাইব্রেরিয়ান ও শারীরিক শিক্ষক নেই দীর্ঘদিন ধরে। তিনজন করণিকের আছে একজন। ৫ জন প্রদর্শক শিক্ষকের বিপরীতে আছে দুই জন। ১১ জনের অফিস সহায়ক পদের স্থানে কর্মরত আছে মাত্র ৫ জন। ৬ জনের পদ শূন্য। শূন্য পদের অধ্যক্ষ, শিক্ষক, করণিক ও অফিস সহায়করা অবসরে গেছেন। কলেজে শুধুই নেই আর নেই এমন দাবি কর্মরত শিক্ষকদের।

এদিকে গত ১৬ সেপ্টেম্বর কলেজের অধ্যক্ষ মো. মজিবুর রহমান অবসরে যান। বর্তমানে কলেজটিতে অধ্যক্ষ পদও শূন্য। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে চলছে কলেজের কার্যক্রম। জাতীয়করণের পর থেকে পর্যায়ক্রমে শিক্ষক অবসরে যাওয়ায় শিক্ষক সংকট চরম আকার ধারন করছে। গত পাঁচ বছর ধরে শিক্ষক অবসরে গেলেও শিক্ষা মন্ত্রণালয় শিক্ষক দিচ্ছেন না এমন অভিযোগ ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. হোসেন আহম্মেদের। এতে পাঠ দান বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। দ্রুত অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারী দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাণিজ্য বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমতলী সরকারি কলেজে বাণিজ্য বিভাগে ভর্তি হওয়া মানে শিক্ষা জীবনকে বিপদে ফেলে দেয়া। দীর্ঘদিন ধরে এই বিভাগে ফিন্যান্স ও মার্কেটিং বিষয়ের শিক্ষক নেই। ইতিহাস বিষয়ের ছাত্র সাইদুর রহমান বলেন, শিক্ষক না থাকায় ক্লাস হচ্ছে না। এতে চরম ভাবে শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। দ্রুত শিক্ষক দেয়ার দাবি জানান তিনি। অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী শুভ বলেন, শিক্ষক না থাকায় গত দুই বছর ধরে অর্থনীতি বিষয়ের ক্লাস হয় না। এমন একটি জটিল বিষয়ে শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীরা চরম বিপদে পড়ছে।

শিক্ষার্থী জাকারিয়া, সুচনা, তানহা, কুনতুলিকা সেতারা ও মেহেরুন আক্তার বলেন, গত পাঁচ বছর ধরে কলেজের আবশ্যিক বিষয় বাংলার শিক্ষক নেই। তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ের শিক্ষক গত মাসে অবসরে গেছেন, পাঠদানে সমস্যা আরো একটি যোগ হলো। এতে আমরা পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। দ্রুত কলেজে আবশ্যিক বিষয়সহ সকল বিষয়ের শিক্ষক দেয়ার দাবি জানান তারা। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. হোসেন আহম্মেদ বলেন, কজেলের ২২টি বিষয়ের ৮টি বিষয়ের শিক্ষক নেই। অবসরে যাওয়ার পর থেকে ৮ বিষয়ের শিক্ষক শূন্য। সংশ্লিষ্ট দফতরে শিক্ষক চেয়ে আবেদন করেছি কিন্তু পাচ্ছি না। শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীদের পাঠদানে সমস্যা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, কলেজের অধ্যক্ষ, শিক্ষক, করণি ও অফিস সহায়কসহ ৪৪ জনের পদ রয়েছে। কিন্তু কর্মরত আছে মাত্র ২২ জন। ২২ জনের পদ শূন্য রয়েছে। দ্রুত চাহিদামত শিক্ষক, করণিক ও অফিস সহায়ক না দিয়ে কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৪
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৮
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫১৬১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.