নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৩ অক্টোবর ২০১৭, ২৮ আশ্বিন ১৪২৪, ২২ মহররম ১৪৩৯
নৈতিকতার অবক্ষয়
কখনো কখনো ভাবতে কষ্ট হয়। যেমন ভাবতে কষ্ট হয়, দরিদ্র আনসার সদস্যদের সামান্য পারিশ্রমিকও ভাগবাটোয়ারা করে খান ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, সাম্প্রতিক দুর্গাপূজার সময় নড়াইল জেলার বিভিন্ন পূজাম-পে ৩ হাজার ২৭০ জন আনসার ও ভিডিপি সদস্য দায়িত্ব পালন করেছেন। পাঁচ দিন-পাঁচ রাত টানা নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনের পর একেকজন সদস্যের পারিশ্রমিক হয় এক হাজার ৬০০ টাকা এবং দলনেতার হয় এক হাজার ৭০০ টাকা। অভিযোগ উঠেছে, এই সামান্য টাকাও তারা হাতে পাননি। ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা পর্যন্ত প্রত্যেকের পারিশ্রমিক থেকে কেটে নেয়া হয়েছে। তাতে যে ১৬ লাখ টাকার মতো পাওয়া গেছে তা ভাগবাটোয়ারা করে নিয়েছেন ওপরের কর্মকর্তারা। অভিযোগ সত্য হলে এর চেয়ে হীন মনোবৃত্তির কাজ আর কী হতে পারে! এটি কি ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে লুটপাট করার শামিল নয়?

দুর্নীতির ধারণাসূচকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান এখনো লজ্জাকর। কয়েকবার শীর্ষ দুর্নীতিবাজ দেশের তালিকায়ও ছিল। কিন্তু দেশ তো দুর্নীতি করে না, করে দেশের এমনই কিছু মানুষ। তাদের জন্য গোটা দেশ কলঙ্কিত হয়।

গোটা দেশের মানুষ লজ্জা পায়। এমন কোনো সরকারি সেবা-পরিষেবা নেই, যেখানে দুর্নীতি নেই। শুধু সরকারি নয়, বেসরকারি সেবাও কম দুর্নীতিগ্রস্ত নয়। পবিত্র হজের সময় প্রতি বছরই তা স্পষ্ট হয়। বাজারে দ্রব্যমূল্য নিয়ে যা হয় তার শিকার তো আমরা সবাই হচ্ছি। অবস্থাক্রমে এমন দাঁড়াচ্ছে যে গড়পড়তা বলে দেয়া যায়, যার যেখানে সুযোগ আছে সেই সেখানে দুর্নীতিবাজ, লুটপাটকারী, নৈতিকতাবিবর্জিত মানুষ। এ অবস্থা থেকে আমাদের উত্তরণ কি সম্ভব? নাকি এই অবক্ষয় আমাদের আরো নিচে ধাবিত করবে?

দুর্নীতি করে কিংবা অপরাধ করে যদি কেউ পার পেয়ে যায়, তাহলে দুুর্নীতি-অপরাধ ক্রমেই বাড়তে থাকে। তাই দুর্নীতিবাজ ও অপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করতে হয়। অপরাধের শাস্তি নিশ্চিত করতে হয়। নড়াইলে যা ঘটেছে সঠিক তদন্ত হলে তার সত্যতা প্রমাণ করা এমন কোনো কঠিন কাজ নয়। আনসার অধিদফতরের পক্ষ থেকে এর তদন্ত করতে হবে। দুর্নীতি দমন কমিশন বা দুদককেও অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব নিতে হবে। স্থানীয় প্রশাসনও অভিযোগ তদন্ত করতে পারে। এই জঘন্য কাজের সঙ্গে যারাই যুক্ত থাক, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করার কাজে সমাজকেও এগিয়ে আসতে হবে। যেখানেই এ ধরনের ঘটনা ঘটবে সেখানেই সবাইকে প্রতিবাদে সোচ্চার হতে হবে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৩
ফজর৫:১১
যোহর১১:৫৩
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৪
সূর্যোদয় - ৬:৩২সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৮১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.