নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৩ অক্টোবর ২০১৭, ২৮ আশ্বিন ১৪২৪, ২২ মহররম ১৪৩৯
ভিয়েতনামে বন্যা ও ভূমিধসে ৩৭ জনের মৃত্যু
জনতা ডেস্ক
নিম্নচাপের কারণে সৃষ্ট ব্যাপক বৃষ্টিপাতে ভিয়েতনামে আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে ৩৭ জন নিহত ও ৪০ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। দেশটিতে বন্যায় রেকর্ডকৃত মৃতের সংখ্যার মধ্যে এটি অন্যতম সর্বোচ্চ বলে গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছে ভিয়েতনামের দুর্যোগ প্রতিরোধ সংস্থা। বন্যা ও ভূমিধসে আরো ২১ জন আহত হওয়ার কথাও জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। ভিয়েতনামের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলেই বন্যা ও ভূমিধসের অধিকাংশ ঘটনা ঘটেছে।

ভিয়েতনামের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে (ভিটিভি) উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় হোয়া বিন প্রদেশের বাসিন্দা নাগো থি সু বলেন, আমাদের পুরো গ্রাম ঘুমহীন রাত কাটাচ্ছে। পানির বিরুদ্ধে লড়াই করা অসম্ভব, কয়েক বছরের মধ্যে এটিই সবচেয়ে প্রবল বন্যা। সোমবার থেকে দেশটি বন্যার কবলে পড়েছে। ভিয়েতমানের প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ বিভাগের কেন্দ্রীয় স্টিয়ারিং কমিটি জানিয়েছে, নদীর পানির উচ্চতা নিয়ন্ত্রণের জন্য কর্তৃপক্ষগুলো বাঁধের পানি ছাড়া শুরু করেছে।

এক প্রতিবেদনে কমিটি জানিয়েছে, ১৭ হাজারেও বেশি ঘরবাড়ি থেকে লোকজনকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং বন্যার ২০০ বাড়ি ভেসে গেছে। পাশাপাশি প্রায় ১৮ হাজার বাড়ি ডুবে গেছে অথবা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৮ হাজার হেক্টর জমির ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং প্রায় ৪০ হাজার গবাদিপশু মারা গেছে বা পানিতে ভেসে গেছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

হোয়া বিন প্রদেশে জরুরি অবস্থা জারি করেছে কর্তৃপক্ষ। ভিয়েতনামের বৃহত্তম জলবিদ্যুৎ প্রকল্প হোয়া বিন বাঁধের আটটি গেট খুলে দিয়ে পানি বের করে দেওয়া হচ্ছে বলে ভিটিভি জানিয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী গুয়েন শান পুক উত্তর ভিয়েতনামের বন্যাকবলিত নিন বিং প্রদেশে পরিদর্শন করেছেন। ভিয়েতনামের তিন হাজার ২৬০ কিলোমিটার উপকূল আছে। সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে দেশটির উপকূলীয় নিম্নাঞ্চলগুলোতে বন্যা, ভাঙ্গন ও লবণাক্ততা বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাশাপাশি দীর্ঘ উপকূলের কারণে ভিয়েতনামকে প্রায়ই ধ্বংসাত্মক ঝড়ের মোকাবিলা করতে হয়। ঝড়ে গত বছর দেশটিতে দুইশরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

ভিয়েতনামের পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশ থাইল্যান্ডেও বন্যা দেখা দিয়েছ। দেশটির ৭৭টি প্রদেশের মধ্যে সাতটি বন্যাক্রান্ত হয়েছে বলে গতকাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম চাল রপ্তানিকারী দেশ থাইল্যান্ডের চার লাখ ৮০ হাজার হেক্টর জমির ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ১৯
ফজর৪:১৬
যোহর১২:০৩
আসর৪:৩৭
মাগরিব৬:৩২
এশা৭:৪৮
সূর্যোদয় - ৫:৩৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৯৭৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.