নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১২ অক্টোবর ২০১৮, ২৭ আশ্বিন ১৪২৫, ১ সফর ১৪৪০
অবস্থান কর্মসূচিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ
ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
স্টাফ রিপোর্টার
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে সাংবাদিকরা মুখে কালো কাপড় বেঁধে এবং রাস্তায় ক্যামেরা রেখে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এসময় প্রতিবাদী সাংবাদিকরা কালো আইন বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন সেস্নাগান সংবলিত প্ল্যাকার্ড বহন করেন। এসময় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকসহ দেশের সর্বস্তরের মানুষের বাক-স্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে ক্ষমতা পাকাপোক্ত করার জন্যই সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কার্যকর করেছে। এতো নিকৃষ্ট আইন বিশ্বের আর কোথাও নেই। সাংবাদিক সমাজ ঘৃণাভরে এ কালো আইন প্রত্যাখ্যান করছে। এই কালো আইনের শাসনের চূড়ান্ত পতন ঘটাবে। অবিলম্বে এ আইন বাতিল করার আহ্বান জানান তারা। গণবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে আয়োজিত অবস্থান কর্মসূচিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য রাখেন- বিএফইউজে'র সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম, বিএফইউজের সাবেক মহাসচিব এম এ আজিজ, জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক ইলিয়াস খান, বিএফইউজে'র সিনিয়র সহ-সভাপতি নূরুল আমিন রোকন, সহ-সভাপতি মোদাব্বের হোসেন, সহকারী মহাসচিব আহমেদ মতিউর রহমান, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সাবেক সভাপতি একেএম মহসীন প্রমুখ।

রুহুল আমিন গাজী বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কিত আইন। এই কলঙ্কিত আইন সাংবাদিক সমাজ মানে না। এ আইন সাংবাদিকসহ দেশের সকলকে নিরাপত্তাহীনতায় ফেলে দিয়েছে। কেউ স্বাধীনভাবে লিখতে ও বলতে পারবে না। স্বাধীন দেশে এমন আইন বাস্তবায়ন হতে পারে না। এ আইন বাক-স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র পরিপন্থী। এ আইন বাতিলের দাবিতে আমরা রাজপথে আছি এবং থাকবো। যতদিন এ আইন বাতিল না হবে ততদিন আন্দোলন চলবে।

শওকত মাহমুদ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মতো ঘৃণিত আইন পৃথিবীর কোথাও আছে কিনা- আমার জানা নেই। এ আইনে কেউ স্বাধীনভাবে লিখতে পারবে না। কারো কাছে ই-মেইল আসলে বা কেউ পাঠালে সেটা যদি সরকারের বিরুদ্ধে যায় তাহলে তাকে সাজা পেতে হবে। রিপোর্টার হিসেবে স্বাধীনভাবে লিখতে পারবে না। এ আইনের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে বিরোধী মতের মিডিয়াগুলোকে অপসারণ করা হবে। কেউ যেনো সরকারের সমালোচনা করতে না পারে এজন্যই এ আইন কার্যকর করা হয়েছে। এমন কালো আইন সাংবাদিক সমাজ মানবে না। এসময় তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে শরিক হওয়ার আহ্বান জানান।

এম এ আজিজ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এ ভূখ-ের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর আইন। এ আইন বলবৎ থাকলে কেউ স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারবে না। সমাজের কোনো অন্যায় কেউ জানতে পারবে না। গণতন্ত্র থাকবে না। বাক-স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করতে হবে।

কাদের গনি চৌধুরী বলেন, এই আইন দুনিয়ার সবচেয়ে নিকৃষ্টতম আইন। মানব শাসিত সমাজে এ আইন কল্পনাও করা যায় না। এ ড্রাকুনিয়ান'ল স্বাধীন সাংবাদিকতা এবং বাক-স্বাধীনতার জন্য একটি বড় হুমকি। সাংবাদিকদের ভাগ্য এখন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার ওপর নির্ভর করবে। পুলিশের দ্বারা আইনটি অপব্যবহারের গুরুতর ঝুঁকি রয়েছে। শহিদুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিকদের কণ্ঠরোধ করার জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কার্যকর করা হয়েছে। অবিলম্বে এ আইন বাতিলের আহ্বান জানাচ্ছি। তা না হলে এর পরিণতি ভালো হবে না। এ আইন বাতিলের দাবিতে আমরা রাজপথে আছি এবং থাকবো।

কর্মসূচি : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে আগামী ১৭ অক্টোবর বুধবার বেলা ১১টায় বিএফইউজে ও ডিইউজে'র উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সাংবাদিক সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১১
ফজর৫:১০
যোহর১১:৫২
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:৩০সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৪৪১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.