নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১২ অক্টোবর ২০১৮, ২৭ আশ্বিন ১৪২৫, ১ সফর ১৪৪০
মীরসরাইয়ে ৮৪টি মণ্ডপে নেয়া হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজার প্রস্তুতি
মীরসরাই (চট্টগ্রাম) থেকে আব্দুল মান্নান রানা
আকাশে সাদা মেঘের ভেলা, শুভ্র কাশফুল আর শিউলি ফুলের গন্ধে জানান দিচ্ছে শরতের আগমন। শরতে উদ্যাপিত হবে সনাতনি সম্প্রদায়ের সব চেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয়া দুর্গাপূজা। দুর্গোৎসবকে ঘিরে সনাতনি সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে আনন্দের বন্যা বইতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে প্রতিমা শিল্পীরা তুলির শেষ আছড়ে ও সাজপোশাকে মা-এর প্রতিমাকে দিচ্ছে পূর্ণ রূপ। প্রতিমা সাজানোকে ঘিরে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে শিল্পীরা। পূজাম-পে ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ডেকোরেটার্স, লাইটিংয়ের চূড়ান্ত প্রস্তুতি। পূজা উপলক্ষে প্রতিটি মন্দিরে বাড়তি আলোকসজ্জার আয়োজন করা হয়। এছাড়া থাকে বাড়তি নিরাপত্তা।

প্রতিটি বাড়িতে তৈরি করা হয় নারিকেলের নাড়ুসহ বিভিন্ন মুখরোচক খাবার। প্রতিবছরের মতো এবারও চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের ১৬টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভার ৮৪টি ম-পে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শারদীয়া দুর্গাপূজা উদযাপনব করা হবে। মীরসরাই পূজা কমিটি সূত্রে জানা গেছে, এবছর মীরসরাইয়ে ৮৪টি ম-পে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। ৭৯টি ম-পে প্রতিমা ও ৫টি ম-পে ঘট পূজা (প্রতীমাবিহীন) হবে। পূজা ম-পগুলোতে ২ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। দুটি থানার অধীনে পূজাম-পগুলোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

৮৪টি পূজাম-পের মধ্যে ৪৬টি পূজাম-পের নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকবে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ। বাকিগুলোতে থাকবে মীরসরাই থানা পুলিশ। দেওয়ানপুর শ্রী শ্রী রাধাকৃষ্ণ সেবাশ্রম শারদীয় পূজাম-পে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শিল্পী তাপস দে জানান, ইতোমধ্যে প্রতিমার মাটি ও রংয়ের কাজ শেষ হয়েছে। এরপর গহনা ও শাড়ির মাধ্যমে প্রতিমা পাবে মায়ের পূর্ণ রূপ। রাজবাড়ী থেকে আসা প্রতিমা শিল্পী সুশান্ত পাল জানায়, প্রতিমা তৈরিতে ব্যবহৃত হয় মাটি, খড়, পাট, কাপড়, রং ইত্যাদি। ওরিয়েন্টাল ও পোশাক সাজানির মাধ্যমে দুইভাবে প্রতিমা কারিগরের প্রতিমা তৈরি করেন। সুনিপুণ হাতের কাজ প্রতিমাকে আরো বেশি উজ্জ্বল ও সুন্দর করে। তাই দুর্গাপূজা পরিচালনা পরিষদ সব সময় দক্ষ কারিগর খোঁজে থাকেন।

মীরসরাইয়ের জোরারগেঞ্জের দেওয়ানপুর গ্রামে সবচেয়ে বেশি দুটি ঘটপূজাসহ ১০টি পূজা হয়। জোরারগঞ্জ ইউনিয়ন পূজা কমিটির সভাপতি বাবুল সেন জানান, ১৪ অক্টোবর মহাপঞ্চমীতে দেবীর বোধনের মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসবের শুরু পরদিন মহাষষ্ঠী পূজা থেকে ম-পে ম-পে বেজে উঠবে ঢাকঢোল আর কাঁসার শব্দ। ১৯ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সনাতনিদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় এই উৎসব। ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। মীরসরাই পূজা উদযাপনব পরিষদের সভাপতি সুভাষ সরকার ও সাধারণ সম্পাদক সজল শীল জানান, এবছর মীরসরাইয়ে ৮৪টি পূজাম-পে দুর্গাপূজা উদযাপনব হবে।

তবে এবার কোনো পূজাম-প ঝুঁকিপূর্ণ নয়। ইতোমধ্যে পূজা উদযাপনব পরিষদ প্রশাসন ও কমিটির সাথে কয়েকটি প্রস্তুতিমূলক সভা সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপির সাথেও পূজা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইফতেখার হাসান জানান, জোরারগঞ্জ থানার অধীনে ৪৬টি পূজাম-প রয়েছে।

দুর্গাপূজা উপলক্ষে ৩ স্তরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পূজাম-পের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। মীরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহিদুল কবির জানান, সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব নির্বিঘ্নে পালন করতে সব ম-পে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২১
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫০
মাগরিব৫:৩১
এশা৬:৪৩
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭০৪৮.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.