নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১২ অক্টোবর ২০১৮, ২৭ আশ্বিন ১৪২৫, ১ সফর ১৪৪০
জনতার মত
ডেঙ্গু প্রতিরোধে চাই সচেতনতা
সফিউল্লাহ আনসারী
ডেঙ্গু ভাইরাসজনিত জ্বর। ডেঙ্গু ভাইরাস মশার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে জন থেকে জনে। এই মরণব্যাধি ডেঙ্গু আবারও আতংক, আবারও মৃত্যু ভয় নিয়ে ছড়িয়ে পড়ছে। এই জ্বরের প্রকোপ বৃদ্ধির সাথে সাথে জনগণকে অজানা শঙ্কা ভাবিয়ে তুলেছে। রাজধানীসহ সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হচ্ছে শিশুসহ সব বয়সের মানুষ।

তবে এই ডেঙ্গু ভাইরাস কোমলমতি শিশুদের বেশি পরিমাণে আক্রমণ করে থাকে। ফলে এর তীব্র প্রকোপে শিশুরা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুযন্ত্রণায় পতিত হয়। অনেক সময় মৃত্যুর কারণ হচ্ছে এই ডেঙ্গু জ্বর। তবে আতংকিত হয়ে ডেঙ্গুকে ভয়ের কারণ হিসেবে না নিয়ে আমাদের সচেতনতা বাড়াতে হবে। আর সতেচনতার সাথেই দ্রুত সময়ে সঠিক চিকিৎসা গ্রহণ এ ভয়ানক জ্বর থেকে আমাদের রক্ষা করতে পারে।

ডেঙ্গু ভাইরাসজনিত জ্বর হওয়ায় ভাইরাসজনিত অন্য রোগের মতো সরাসরি এর কোনো প্রতিষেধক নেই, নেই কোনো টিকা। আর এ কারণেই আতংকের আরেক নাম ডেঙ্গু। ইদানীং ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গুর সাথে চিকনগুনিয়া ভাইরাসের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। এতে আক্রান্ত রোগীদের হঠাৎ করে অনেক জ্বর ও গায়ে প্রচুর ব্যথা দেখা দিচ্ছে। এই ডেঙ্গুতে ক'দিনের মধ্যে শিশু-নারীসহ কয়েকজনের মৃত্যুর খবর পত্রিকায় এসেছে।

এই ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে এখনই ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি সচেতনতা বাড়াতে হবে। ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ ও ভয়াবহতাকে থেকে জনগণের সুরক্ষার জন্য দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপও নিতে হবে।

'সাধারণত মশক নিধন কার্যক্রমের স্থবিরতা, গাইডলাইনের অভাব এবং মানুষের অসচেতনতাই ডেঙ্গুর প্রকোপের জন্য প্রধানত দায়ী বলে বিজ্ঞ মহলের ধারণা। মাঝে-মধ্যে বৃষ্টিতে ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশার লার্ভা খুব বেশি মাত্রায় প্রজনন সক্ষমতা বাড়িয়ে এডিস মশার বিস্তার ঘটিয়ে মশার পরিমাণ বৃদ্ধি করছে। জানা গেছে, এডিস মশার পরিমাণ যতো বৃদ্ধি পাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত লোকের হারও বাড়বে। ডেঙ্গুর হাত থেকে বাঁচতে খুঁজে খুঁজে মশার উৎস বন্ধ করতে পারলেই ডেঙ্গুর ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যাবে।'

ক্লাসিক্যাল ও হেমোরেজিক ডেঙ্গু নামে দু'প্রকারের ডেঙ্গুর জ্বর রয়েছে। এ জ্বরের ভয়াবহতাকে রক্ষা পেতে, 'এডিস মশার বিস্তার রোধ এবং এই মশা যেনো কামড়াতে না পারে তার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। রাজধানীসহ দেশের সবখানে মশা নিধন ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। স্বচ্ছ পরিষ্কার পানিতে এরা ডিম পাড়ে- তাই ডেঙ্গু প্রতিরোধে এডিস মশার ডিম পাড়ার উপযোগী এসব স্থানগুলোকে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে এবং পরিষ্কার রাখতে হবে। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের মেয়র কর্তৃক এডিস মশা নিধন এবং এডিসের বংশ বিস্তার রোধে পদক্ষেপ গ্রহণ জোরদার করতে হবে। ডেঙ্গুর প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করতে হবে। ডেঙ্গুর প্রাথমিক লক্ষণগুলো সমপর্কে মানুষকে জানাতে হবে। ডেঙ্গু হলে করণীয় সমপর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করে, রাজধানী ও জেলা-উপজেলা সদরের সরকারি হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু শনাক্তকরণ ও চিকিৎসায় বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সর্বোপরি এডিস মশা নিধনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।' তবেই সম্ভব ডেঙ্গুর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা ও প্রতিরোধ করা।

নগরবাসীর দাবি এবং প্রত্যাশা যতো দ্রুত সম্ভব এডিস মশার বিস্তার রোধ ও মশা ধ্বংস করে, আক্রান্তদের সঠিক চিকিৎসাসেবা প্রদান করে ডেঙ্গু আতংক থেকে রক্ষা করা। ডেঙ্গুর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পেতে সকলের সচেতনতা সর্বাগ্রে প্রয়োজন। ডেঙ্গু যেনো বৃদ্ধি পেতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

সফিউল্লাহ আনসারী : লেখক

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ১৬
ফজর৪:৪১
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৫৪
মাগরিব৫:৩৫
এশা৬:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:৩০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৭০৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.