নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২৫ আশ্বিন ১৪২৬, ১০ সফর ১৪৪১
কৃষি ও পল্লীঋণ বিতরণের হার খুব কম
গাংনীতে সরকারি উন্নয়ন পরিকল্পনা বাধাগ্রস্ত
গাংনী (মেহেরপুর) থেকে লিটন মাহমুদ
মেহেরপুরের গাংনীতে ব্যাংক ব্যবস্থাপক ও ম্যানেজারদের উদাসীনতা ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে কৃষি ও পল্লীঋণ বিতরণের হার খুব কম। উপজেলায় কৃষিসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সহজ শর্তে ব্যাংক ঋণ বিতরণের কথা থাকলেও ব্যাংক কর্মকর্তারা সেই নির্দেশ পালন করছেন না। ফলে বিভিন্ন ফসল উৎপাদন, মসলা জাতীয় শস্য, গরু ছাগল মোটাতাজাকরণ, ক্ষুদ্র শিল্পসহ নানা রকম উন্নয়নে ব্যাংক সহায়তা না পাওয়ার কারণে করতে পারছেন না। সে কারণে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা ভেস্তে যাচ্ছে।

উপজেলার বিভিন্ন ব্যাংকের অফিসার ও ম্যানেজার এবং উপজেলা কৃষি ঋণ কমিটির সদস্য সচিবের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, গাংনী সোনালী ব্যাংক লিমিটেডে চলতি অর্থবছরে ঋণ বিতরণের জন্য ১ কোটি ৩৫ লাখ টাকা, সোনালী ব্যাংক গাড়াডোব বাজার শাখায় ১ কোটি ২৮ লাখ ৬৬ হাজার, জোড়পুকুরিয়া শাখায় ২ কোটি ২৬ লাখ ৪৩ হাজার, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক গাংনী শাখায় ৬৩ কোটি ২৭ লাখ টাকা, কাথুলী শাখায় ৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা, জনতা ব্যাংক শাখায় ২শ ৬ কোটি টাকা, বিআরডিবি (গাংনী) ৩ কোটি ৭০ লাখ ৪৫ হাজার টাকা, কর্মসংস্থান ব্যাংক ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা ও আনসার ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকে ২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

চলতি অর্থবছরের ৩ মাস শেষ হলেও বিভিন্ন ব্যাংকে ঋণ বিতরণের হার অদ্যাবধি নিম্নরুম, গাংনী সোনালী ব্যাংকে ৭.২৪ শতাংশ, গাড়াডোব শাখায় ২০ শতাংশ, জোড়পুকুরিয়া শাখায় ১৮.২৮ শতাংশ, কৃষি ব্যাংক গাংনী শাখায় মাত্র ২ শতাংশ, কাথুলী শাখায় ৭৬ শতাংশ, জনতা ব্যাংেকের ঋণ বিতরণ ২৬ শতাংশ, বিআরডিবি শাখায় ৫১ শতাংশ, কর্মসংস্থান ব্যাংক শাখায় ১০ শতাংশ ও আনসার-ভিডিপি ব্যাংক শাখায় মাত্র ৪ শতাংশ ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। যা বরাদ্দের তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল। এখানে লক্ষণীয় কাথুলী কৃষি ব্যাংক ও বিআরডিবি শাখায় ঋণ বিতরণের হারও বেশি আদায়ের হারও বেশি।

অথচ রাষ্ট্রীয় ব্যাংকগুলোতে নানা অজুহাত দেখিয়ে চাহিদানুযায়ী কৃষি ঋণ বিতরণ করছেন না। দালালদের মাধ্যমে অল্প সংখ্যক কয়েকজনকে ঋণ বিতরণ করা হলেও বেশিরভাগ ঋণ সুবিধা পেতে ইচ্ছুক গ্রাহকগণ ঋণ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।

এনিয়ে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক গাংনী শাখার ব্যবস্থাপক মিনহাজউদ্দীন জানান, চলতি বছরের বরাদ্দ অনুযায়ী আমরা কৃষি ঋণ বিতরণ করতে পারি না। কারণ হিসাবে বলতে পারি, বিতরণকৃত ঋণ আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অনেক সময় পূরণ হয় না।

এটি একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠান, সেকারণে আমরা যাচাই বাছাই করে ঋণ প্রদান করে থাকি। এছাড়া লোকবলের অভাবেও মাঠ পর্যায়ে ঋণ আদায় ঠিকমতো করা হয় না।

একইভাবে গাংনী সোনালী ব্যাংক শাখার ব্যবস্থাপক ও উপজেলা কৃষি ঋণ বিতরণ কমিটির সদস্য সচিব হাশিমউদ্দীন (স্থলাভিসিক্ত) জানান, চলতি বছরের বরাদ্দ অনুযায়ী কৃষি ঋণ আমরা লোকবলের অভাবে বিতরণ করতে পারছি না। অন্যদিকে খেলাপি ঋণ আদায়ে তেমন অগ্রগতি আমরা দেখাতে পারছি না।

এব্যাপারে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা ঋণ বিতরণ কমিটির সভাপতি দিলারা রহমান জানান, আমি নতুন এসেছি। ব্যাংকের বিষয়টি আমি এখনো খোঁজ খবর নিতে পারিনি।

তবে ৩ মাসে ঋণ বিতরণের রিপোর্ট সন্তোষজনক নয়। আমি ব্যাংক কর্মকর্তাদের ডেকে নিয়ে নির্দেশনা দেব। কৃষিঋণ বিতরণে গাফিলতি বা অনিয়ম হলে দোষী ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঋণ বিতরণের গাইড লাইন ধরে ঠিকমত ঋণ বিতরণ করতে হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৯
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৫সূর্যাস্ত - ০৫:১০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৫৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.