নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৯ ভাদ্র ১৪২৫, ২ মহররম ১৪৪০
বাসে চড়ে বাসায় ফিরলেন প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম
জনতা ডেস্ক
সাধারণ যাত্রীর মতো রাজধানীর গণপরিবহনে করে বাসায় ফিরলেন সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। পুলিশ প্রটোকল ছাড়াই সচিবালয় থেকে বের হয়ে পুরানা পল্টন থেকে বাসে উঠে যানজট, ধুলোবালি, শব্দ দূষণের মতো যন্ত্রণা মাথায় নিয়ে গুলশানের বাসায় ফেরেন প্রতিমন্ত্রী। একজন প্রতিমন্ত্রী বাসে করে ফেরায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ওই বাসে থাকা যাত্রী, চালক ও তার সহকারীরা। এ সময় যাত্রীরা প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে সেলফি তুলেছেন,

দিয়েছেন বাহবাও।

গতকাল বুধবার সচিবালয়ে অফিস করে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে তারানা হালিম একটি পাবলিক বাসে করে প্রায় দুই ঘণ্টায় বাসায় ফেরেন বলে জানিয়েছেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন একজন এপিএস এবং পিও। একেক জন ১৫টাকা করে ভাড়া দিয়েছি, তারা ভাড়া নিতে চায়নি, বলেছি সাধারণ মানুষের মতোই ভাড়া দেবো, বলেন তারানা হালিম। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ কীভাবে বাসে যাতায়াত করেন এবং গণপরিবহনের অবস্থা কেমন- তা জানতে পাবলিক ট্রান্সপোর্ট অফিস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সাধারণ যাত্রীরা একজন প্রতিমন্ত্রীকে বাসে দেখে খুবই খুশি হয়েছেন। পুরানা পল্টনে বাসে ওঠার সময় এবং বাসে উঠে প্রতিমন্ত্রীকে চিনতে পেরে যাত্রীদের অনেকেই সেলফি তোলেন এক সময়ের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর সঙ্গে। তারা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন বলে জানিয়েছেন তার সঙ্গে থাকা কর্মকর্তারা। তথ্য প্রতিমন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা এনায়েত হোসেন বলেন, পুরানা পল্টন থেকে ঢাকার বহুল ব্যবহৃত '৬ নম্বর' বাসটি তেজগাঁও হয়ে গুলশান-১ নম্বরে যায়। সেখান থেকে হেঁটে বাসায় ফেরেন প্রতিমন্ত্রী।

তারানা হালিম বলেন, বাসের যাত্রীরা সবাই খুশি হয়েছেন। তারা প্রথমে বিশ্বাস করতে পারেননি আমি বাসে উঠবো। আমি সাধারণ যাত্রীদের উচ্ছ্বাস দেখে খুশি হয়েছি, আমারও খুব ভালো লেগেছে। তিনি বলেন, বাসে উঠে দেখলাম উপরে (ছাদের অংশে) কেটে বাতাস প্রবেশের জন্য ভেন্টিলেটর তৈরি করা হয়েছে। আমি বললাম এটা মাথায় পড়ে কেটে যেতে পারে। তারা বললো ঠিক করে দেবে। তারানা হালিম আরো বলেন, বাসের সিটের কাভারগুলো তেল চিটচিটে ছিল। আমি বললাম এগুলো হাতে এবং নখে থাকলে কোনো খাবার খেলে তো অসুস্থ হয়ে যাবে মানুষ। কাভারগুলো পরিষ্কার বা পরিবর্তন করে দিতে বললাম, তারা বললো পরিষ্কার করবেন। একজন প্রতিমন্ত্রীর নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে আমার কোনো চিন্তা ছিল না। বাসে ওঠার সময় আমাকে চিনতে পেরে চালক বললো আপা, পুলিশ ছাড়াই উঠবেন? আমি বললাম হ্যাঁ। তারা বললো আপা আমরাই তো আপনার প্রটেকশন, ওঠেন। সাধারণ মানুষ একজন প্রতিমন্ত্রীর বাসে ওঠার বিষয়টি ভালোভাবে নিয়েছেন, এখন থেকে প্রায় প্রতিদিনই বাসে যাতায়াত করবো, বাসায় ফিরে মোবাইল ফোনে বলেন তারানা হালিম।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২৪
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৬
এশা৭:০৯
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৬৮.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.