নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২৮ ভাদ্র ১৪২৬, ১২ মহররম ১৪৪১
জগন্নাথপুরে সড়কের গর্তে আবারও গাড়ি দেবে দীর্ঘ যানজট
জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সড়ক ভাঙনের গর্তে আবারও গাড়ি দেবে আটকে যাওয়ায় দীর্ঘ যানজটের কারণে জন ভোগান্তি বেড়েছে। জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কের হামজা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থাকা গর্তে বারবার গাড়ি দেবে যাওয়ার ঘটনায় এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাত্রী-জনতা। এ গর্তটি বড় হয়ে এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। সড়ক জুড়েই গর্ত হওয়ায় যানবাহন আসলেই দেবে যাচ্ছে। বিকল্প কোন সড়ক না থাকায় জেনে বুঝেই চালকরা মরণ ফাঁদে আটকা পড়ছেন। ছোট গাড়িগুলো কোন রকমে যাতায়াত করলেও মালবাহী বড় গাড়িগুলো এখানে এসেই দেবে যায়। ফলে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। এসব যানজটে আটকা পড়ে প্রতিনিয়ত অনাকাঙ্ক্ষিত ভোগান্তির শিকার হন যাত্রী-জনতা। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বুধবার আবারও এ গর্তে ট্রাক ও মিনিবাস গাড়ি দেবে যাওয়ায় দীর্ঘ যানজটে ভোগান্তির শিকার হন যাত্রী-জনতা।

এদিকে-সড়কের এ গর্তে অসংখ্য বার সাময়িক মেরামত কাজ করেছেন সংশ্লিষ্ট এলজিইডি কর্তৃপক্ষ। তাতেও কাজ হচ্ছে না। বারবার ভেঙে সড়কের এ স্থানটি গর্ত হয়ে যাচ্ছে। তারা কাজ করতে করতে দিশেহারা ও গাড়ি দেবে যাওয়া নিয়ে চালকরা আতঙ্কিত এবং যানজটে আটকা পড়ে জনতার ভোগান্তি। কবে এই বিপদ থেকে মুক্তি পাবেন মানুষ। তা কেউ জানেন না। তবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে বা গণমাধ্যমে দুর্ভোগের চিত্র তুলে ধরলে তাৎক্ষণিক গর্তের ভাঙনে ইটের সুরকি ও বালু ফেলে সাময়িক (স্থানীয় ভাষায় ডিপাতালির) কাজ হয়। কয়েক দিন পর আবারো ভেঙে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়। সৃষ্ট গর্তে জমে থাকে বৃষ্টির পানি। এভাবেই গত কয়েক মাস ধরে কোন রকমে জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে যানবাহন চলাচল করছে। এর মধ্যে একবার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এ সময় ভুক্তভোগী জনতা সড়ক মেরামতের দাবিতে অনেক আন্দোলন করেছেন। আন্দোলনের মুখে সাময়িক কাজ হলেও আবারও ভেঙে যায়। তাই স্থায়ীভাবে কাজ করার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান ভুক্তভোগী জনতা। তা না হলে আবারও যানবাহন চলাচল বন্ধ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১১
ফজর৫:১০
যোহর১১:৫২
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:৩০সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৩২২.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.