নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, সোমবার ১০ আগস্ট ২০১৫, ২৬ শ্রাবণ ১৪২২, ২৪ শাওয়াল ১৪৩৬
গফরগাঁওয়ে আমানতকারীদের সাড়ে ৩ কোটি টাকা নিয়ে উধাও আরবান ব্যাংক
গফরগাঁও প্রতিনিধি
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে দি ঢাকা আরবান কো-অপারেটিভ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ দুই হাজার আমানতকারীর সাড়ে ৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংকে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যায়। টাকা আদায়ে আমানতকারী নারী-পুরুষ ও ব্যবসায়ী গতকাল রোববার সকালে গফরগাঁও প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

জানা যায়, ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে কলেজ রোডের বেলাল প্লাজা ২য় তলায় অফিস ভাড়া নিয়ে ২০০৯ সালের ৪ এপ্রিল দি আরবান ব্যাংক গফরগাঁওয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের কার্যক্রম শুরু করে। ব্যাংকের নিজস্ব অর্থে গ্রাহকদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ঋণ দিয়ে তা পরিচালনার কথা থাকলেও বেশি মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে এলাকার প্রবাসী, ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন পেশার লোকদের এফডিআর, ডিপিএস ও সঞ্চয়ী একাউন্টের মাধ্যমে দুই হাজার আমানতকারীদের কাছ থেকে সাড়ে গত ৫ বছরে সাড়ে ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। অধিক মুনাফার লোভে প্রবাসীর স্ত্রী, সন্তান, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ জমি বিক্রি করে এ ব্যাংকে বিভিন্ন মেয়াদি স্থায়ী আমানত করে। এতে সর্বস্বান্ত হয়েছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা, অনেক প্রবাসী পরিবারে দেখা দিয়ে চরম অশান্তি। আবার অনেকেই শেষ সম্বল এক টুকরো জমি বিক্রি করে আজ পথের ভিখারী।

ব্যাংকের আমানতকারী কাঠমিস্ত্রি আসাদুজ্জামান বলেন, আমার ভাতিজা সজিব মিয়া আরবান ব্যাংকের মাঠকর্মী। তার কথায় জমি বিক্রি করে অধিক লাভের আশায় ৬ লাখ টাকা স্থায়ী আমানত রাখি। ব্যাংক কর্মকর্তারা পালিয়ে যাওয়ায় আজ আমি নিঃস্ব। আমানতকারী আঠারদানা হাই স্কুলের শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বিএসসি বলেন, আমরা স্বামী-স্ত্রী অসুস্থ থাকায় ভবিষ্যৎ চিন্তা করে ৮ লাখ টাকা স্থায়ী আমানত করি। হঠাৎ ব্যাংকে তালা ঝুলিয়ে চলে যাওয়ায় গচ্ছিত আমানতের টাকা ফিরে পাব কিনা এ নিয়ে চরম দুচিন্তায় রয়েছি।

উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দি আরবান ব্যাংকটি ঢাকা সমবায় অধিদফতরের যুগ্ম নিবন্ধকের কার্যালয় থেকে অনুমোদন নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। তবে এখন আমানতকারীদের টাকা আত্মসাৎ করে ব্যাংকের কাযক্রম বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

জেলা সমবায় কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াহিদ বলেন, কো-অপারেটিভ আইন অনুযায়ী ব্যাংকিং কার্যক্রম চালানোর কোন সুযোগ নেই। এভাবে কোন আমানত নেয়ারও কোন বৈধতা নেই।


Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 26 file is encrypted or is not a database' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7