নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ জুলাই ২০১৮, ২৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯
হজ কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী
শান্তির ধর্ম ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে ষড়যন্ত্রকারীরা
স্টাফ রিপোর্টার
আশকোনায় হাজী ক্যাম্পের কার্যক্রম ২০১৮-এর আনুষ্ঠানিকভাবে 'চলতি হজ কার্যক্রম' উদ্বোধন করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি ইসলামের নামে বিভ্রান্তি না ছড়ানোর আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে ষড়যন্ত্রকারীরা। গতকাল বুধবার সকালে আশকোনা হজ ক্যাম্পে হজ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। ধর্ম মন্ত্রণালয় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আগামী শনিবার হজযাত্রীদের নিয়ে প্রথম ফ্লাইট মক্কার উদ্দেশে যাত্রা করবে। এ বছর বাংলাদেশ থেকে হজ পালন করতে সৌদি আরব যাবেন ১ লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন।

অনুষ্ঠানে হজযাত্রীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার হজ ব্যবস্থাপনা ডিজিটালাইজড করাসহ নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। শান্তির ধর্ম হচ্ছে ইসলাম। পবিত্র এই ধর্মকে নিয়ে কেউ যেন বিভ্রান্তি ছড়াতে না পারে সে ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেন, ধর্ম শিক্ষাকে মানুষের কাছে সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে। আমাদের ধর্ম পবিত্র ইসলাম ধর্ম, শান্তির ধর্ম। ইসলাম শান্তিতে বিশ্বাস করে। ইসলাম ধর্ম মানুষের জীবন মান উন্নতির কথা বার বার বলেছে। অথচ আমরা মাঝে মাঝে দেখি আমাদের ধর্মকে প্রশ্নবিদ্ধ করে কেউ কেউ। কিছু কিছু মানুষ এই ধর্মের নাম নিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকা- চালায়, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে। তখন সারা বিশ্বের কাছে আমাদের এই ধর্ম প্রশ্নবিদ্ধ হয়। আমরা মুসলমানরা বাইরে গেলে অনেক সমস্যা হয়। মসজিদ ভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য সরকার সারাদেশে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন মডেল মসজিদ নির্মাণ করছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হজযাত্রীদের কাছে দোয়া চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা হজে গিয়ে দেশবাসীর জন্য দোয়া করবেন। দেশ যেন উন্নত ও সমৃদ্ধশালী হয় এবং আমরা দেশ ও দেশের মানুষের জন্য যে কাজ করেছি, যে কাজ করার উদ্যোগ নিয়েছি, তা যেন ভালোভাবে শেষ হয় সে জন্য দোয়া করবেন। তিন বলেন, অতীতে হজ ব্যবস্থাপনায় যথেষ্ট সমস্যা ছিল। ১৯৮৪ সালে আমি প্রথম ওমরাহ পালন করতে যাই। মিনায় গিয়ে আমি বিভিন্ন লোকজনের সাথে কথা বলেছি। তাদের সমস্যার কথা জেনেছি। তখন যদিও আমি কোনো দায়িত্বে ছিলাম না, তবু সৌদি বাদশাকে চিঠি লিখতাম এসব সমস্যা সমাধানের জন্য। পরে '৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে হজ ব্যবস্থাপনা ভালো করার জন্য উদ্যোগ নিই। ধীরে ধীরে এই সমস্যার সমাধান করি। আপনারা যেন ভালোভাবে সেবা পান সেই ব্যবস্থা করা হয়েছে।

হজযাত্রীদের থাকার জন্য সুব্যবস্থা করা হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরবে হজ টার্মিনালের পাশে হজযাত্রীদের থাকার জন্য ৪০ কোটি টাকা ভাড়া দিয়ে আবাসন ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগে সেখানে হজযাত্রীদের রাস্তাঘাটে পড়ে থাকতে হতো। হাজিদের যেন কোনো সমস্যা না হয় সেজন্য সেখানে ভলান্টিয়ার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সেখানে দোভাষী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। হজযাত্রীদের কীভাবে কী করতে হবে সে ব্যাপারে একটা নির্দেশিকা করা হয়েছে। এখন আমাদের হজ ব্যবস্থাপনা সর্বক্ষেত্রে প্রশংসা অর্জন করেছে। তিনি বলেন, জেলায় জেলায় আধুনিক মসজিদ নির্মাণে ৮০ ভাগ জায়গা ইতোমধ্যে চিহ্নিত করেছি। ৮ হাজার কোটি টাকা একনেকে পাস হয়েছে। এ সময় ইসলাম ধর্ম নিয়ে যেন কোনো বিভ্রান্তি না হয় সেজন্য মসজিদ নির্মাণের মাধ্যমে মসজিদভিত্তিক শিক্ষা শুরু করার কথা জানান তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বিমানমন্ত্রী একেএম শাজাহান কামাল, ধর্ম মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বি এইচ হারুন, স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট সাহারা খাতুন, ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ এইচ এম আল-মুতাইরি।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২৬
ফজর৪:৩৪
যোহর১১:৫১
আসর৪:১১
মাগরিব৫:৫৪
এশা৭:০৭
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৪৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৪৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.