নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০১৯, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ৯ শাওয়াল ১৪৪০
সিরিয়ায় অভিযান দীর্ঘায়িত হলে ২০ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হবে
জনতা ডেস্ক
সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে সরকারি বাহিনীর অভিযান দীর্ঘায়িত হলে ২০ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হবে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। সোমবার এই আশঙ্কা প্রকাশ করে দ্রুত অস্ত্রবিরতি পুনরায় কার্যকরের আহ্বান জানায় সংস্থাটি। পাশাপাশি সিরিয়ায় মানবিক ত্রাণ সরবরাহে প্রয়োজনীয় অর্থের যোগান না হওয়ায় শরনার্থী সংকট আরো ঘনীভূত হওয়ার আশঙ্কা জাতিসংঘের। ২০১৮ সালের সেপ্টেস্বরে ইদলিবে নতুন করে সংঘর্ষ এড়াতে সমঝোতায় পৌঁছায় তুরস্ক ও রাশিয়া। এর ধারাবাহিকতায় আত্মসম্পর্ণ ছাড়াও এলাকায় ছেড়ে যায় কয়েকশো বিরোধী যোদ্ধা। এরপরও এবছরের ৩০ এপ্রিল ইদলিবের পশ্চিমাঞ্চল এবং হামা ও লাতাকিয়ায় অভিযান জোরদার করে সরকারি বাহিনী।

বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত শেষ ঘাঁটির দখল নিতে আকাশ পথে আসাদ বাহিনীকে সহায়তা করছে রুশ বিমান। গত সপ্তাহে সরকারি বাহিনীর বিরুদ্ধে অবস্থান জোরদার করে বিরোধীরা। হামা প্রদেশের দুইটি গ্রামের দখল নেয় তারা। আরেক প্রদেশ ইদলিবে, সরকারি বাহিনী ও বিরোধীদের পাল্টাপাল্টি হামলায় শতাধিক নিহতের ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে অর্ধশতই সরকারি বাহিনীর সদস্য। ইদলিবে নতুন করে শুরু হওয়া সহিংসতায় বিপাকে পরেছে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ। এদের বেশিরভাগই গৃহযুদ্ধ শুরুর পর দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ইদলিবে আশ্রয় নিয়েছিলেন। সিরিয়ার চলমান পরিস্থিতিকে চরম মানবিক বিপর্যয় বলে উল্লেখ করেছে জাতিসংঘ। উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে সরকারি বাহিনীর এই অভিযান দীর্ঘায়িত হলে ২০ লাখ মানুষ তুরস্কে পালিয়ে যাবে বলে সতর্ক করেছে সংস্থাটি।

সিরিয়ার আট বছরের গৃহযুদ্ধের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে চলতি বছর দাতা দেশগুলোর প্রতি ৩শ ৩০ কোটি ডলার অর্থ সহায়তার আবেদন করে জাতিসংঘ। কিন্তু এপর্যন্ত সংগ্রহ হয়েছে মাত্র ৫০ কোটি। এমন পরিস্থিতিতে নতুন করে শুরু হওয়া সহিংসতার ক্ষতি পুষিয়ে ওঠা কঠিন হবে বলে আশঙ্কা সংস্থাটির। জাতিসংঘের হিসেবে ২০১১ সালের মার্চে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে সিরিয়ায় প্রাণ গেছে ৪ লাখ মানুষের। তবে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের দাবি, এপর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ৫ লাখ ৭০ হাজার। দেশের ভেতরে এবং বাইরে বাস্তুচ্যুতের সংখ্যা প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ২৯
ফজর৩:৪৫
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪৩
এশা৮:০৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৮
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০২৫৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.