নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৭ মে ২০১৮, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৩০ শাবান ১৪৩৯
ডিএসসিসি উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে : সাঈদ খোকন
স্টাফ রিপোর্টার
ঢাকা দক্ষিণ সিটির দায়িত্ব নেয়ার ৩ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে মেয়র সাঈদ খোকন নিজেকে সফল হিসেবে দাবি করেছেন। এসময় তিনি নগরবাসীর আস্থা অর্জন করেছেন মন্তব্য করে ঢাকার নাম গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্তি হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন।

গতকাল বুধবার নগর ভবনের ব্যাংক ফ্লোরে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি বিগত ৩ বছরের বিভিন্ন উন্নয়ন চিত্রও সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।

তিনি দায়িত্ব গ্রহণের সময় সড়ক ব্যবস্থা, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, মশক নিয়ন্ত্রণসহ প্রায় সব নাগরিক সেবা জরাজীর্ণ ছিল উল্লেখ করে ডিএসসিসিকে বর্তমানে একটা অবস্থানে এনেছেন বলে জানিয়েছেন।

মেয়র খোকন বলেন, দায়িত্বভার গ্রহণকালের সময় দেখা গেছে কর্পোরেশনের সমুদয় রাস্তাঘাট ভেঙেচুরে একাকার হয়ে গিয়েছিল। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ভেঙে পড়েছিল। মশা মারার ওষুধ একটুও মজুদ ছিল না। সড়কবাতি জ্বলতো না। বিদ্যুৎ বিল বকেয়ার কারণে নগর ভবনের বিদ্যুৎ লাইন পর্যন্ত বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। দায়িত্বভার নিয়ে সেখান থেকে কর্পোরেশনকে একটা অবস্থানে নিতে পেরেছি।

এসময় সাঈদ খোকন ক্ষোভের সাথে বলেন, টিপসের খোসা, পানির খালি বোতল, ক্যান, টিস্যু পেপারসহ হালকা আবর্জনা যত্রতত্র না ফেলে নগরীকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ৫৭টি ওয়ার্ডে ৫৭০০টি ওয়েস্ট বিন (মিনি ডাস্টবিন) স্থাপন করা হয়েছিল। কিন্তু কোনো কোনো নগরবাসী এটি ভেঙে নিয়ে বাড়ির ছাদে ফুলের টব, চাল ডাল রাখার পাত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। এছাড়া অনেক ওয়েস্ট বিন চুরি হয়ে গেছে আবার অনেক সচেতন নাগরিক এই ওয়েস্ট বিন রক্ষার জন্য দড়ি দিয়ে বেঁধে রেখেছেন। যেসব ওয়েস্ট বিন চুরি ও নষ্ট হয়ে গেছে সেগুলো আমরা পুনরায় স্থাপন করে দিবো।

সাঈদ খোকন বলেন, জরাজীর্ণ অবস্থায় কর্পোরেশন পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নগরবাসীকে দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেয়ে আমরা ৩ বছরে নগরীর ভাঙাচোরা বেহাল রাস্তা, ফুটপাত, নর্দমা সংস্কার ও মেরামত, এলইডি বাতি সংযোজন, পাবলিক টয়লেট, পার্ক, খেলার মাঠ, কবরস্থান, এসটিএস নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, রাজস্ব উন্নয়ন, জলাবদ্ধতা ও যানজট নিরসনে পদক্ষেপ গ্রহণ, সর্বস্তরের নাগরিকদের সচেতন, সম্পৃক্ত ও অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে ডিএসসিসির সার্বিক কর্মকা-ে গতিশীলতা এনেছি।

তিনি বলেন, নিরলস প্রচেষ্টা, আন্তরিকতা ও কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে যাচ্ছে। সময়ের ব্যবধানে নানা ধরনের পরিবর্তন দৃশ্যমান হয়েছে। এই উন্নয়নের ধারা আরও দৃশ্যমান হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজানুয়ারী - ২২
ফজর৫:২৩
যোহর১২:১০
আসর৪:০২
মাগরিব৫:৪১
এশা৬:৫৭
সূর্যোদয় - ৬:৪২সূর্যাস্ত - ০৫:৩৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৯০৯৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.