নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৭ মে ২০১৮, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৩০ শাবান ১৪৩৯
সৌদিতে আটকে রাখা ৯ নারীকে মুক্ত ও দোষীদের শাস্তি দাবি
অমানুষিক নির্যাতনে গুরুতর অসুস্থ তারা
স্টাফ রিপোর্টার
সৌদি আরবের দাম্মাম শহরের আল খোবার এলাকার ক্যাম্প নাম্বার-১ এ আটক ৯ বাংলাদেশি নারীকে মুক্ত করতে সরকারের জরুরি হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে তাদের আত্মীয় ও সাধারণ মানুষ। এছাড়াও মানববন্ধন থেকে ঐসব নারীদের সৌদিতে পাঠানোয় জড়িত কোম্পানির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন বক্তারা। গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সকল নির্যাতিত নারী ও তাদের ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন নির্যাতিতদের পক্ষে সোনিয়ে দেওয়ান প্রীতিসহ অন্যরা। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি বলেন, প্রথমে মুন্সীগঞ্জের শিউলি আক্তার পিংকি নামের এক তরুণীর পরিবার সাহায্যের জন্য আসে। মেয়েটির সাথে মোবাইল ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ করে জানতে পারি সেখানে আরো ৮ নারীকে আটক রাখা হয়েছে। তারা জানান, গৃহকর্মীর কাজে প্রবাসে নিয়ে যাবার পর তাদের সাথে গৃহকর্তা ও কোম্পানি কর্তৃপক্ষের অমানুষিক নির্যাতনের কারণে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। অতিরিক্ত মারধরের কারণে তাদের কারো গলা বা প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাচ্ছে, কারো বা অপারেশনের সেলাই খুলে রক্ত যাচ্ছে। তাদের গৃহকর্তা জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করলে সেখান থেকে বেঁচে ক্যাম্পে ফেরেন।

তিনি আরো জানান, নির্যাতনের কারণে এইসব নারীরা দেশে ফিরতে চাইলে কোম্পানি তাদের কাছে ১ লাখ থেকে ২ লাখ টাকা উল্টো দাবি করে। এই দাবি পূরণ না করলে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে না বলে জানিয়ে দেয়া হয়। যা এইসব নারীর পরিবারের পক্ষে বহন করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তাদের বর্ণনায় লোমহর্ষক ও হৃদয়বিদারক নির্যাতনের এসব কথা শুনে দেশে ফিরিয়ে আনতে বিদেশে গৃহকর্মী কাজে প্রেরণকারী প্রতিষ্ঠান মনসুর আলী ওভারসিস এন্ড ট্রাভেলসের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হই। গত ১৩ মে রোববার সৌদি এম্বেসি থেকে শুরু করে বিভিন্ন মহলে যোগাযোগ করা হয়। বাসা বাড়িতে কাজের কথা বলে সৌদি নেয়ার পর অমানুষিক নির্যাতনের শিকার ঐসব নারীরা শুধু যে কোনো উপায়ে দেশে আসতে চাইছে। কিন্তু কোম্পানি নানাভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছে। সেখানে অবস্থিত এম্বেসিও কোনো প্রকার সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে না বলে জানান তিনি।

এ কর্মসূচিতে অন্য অংশগ্রহণকারীরা জানান, এদিকে এম্বেসিতে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই খবর ও নির্যাতনের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার খবর পেয়ে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ ঐসব নারীদের ওপর আবারো অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে। তাদের যখন তখন বেধড়ক পেটানো হয়। তাদের নানা ধরনের ভয়-ভীতি প্রদর্শনসহ এম্বেসি থেকে লোক আসার আগেই প্রত্যেককে উক্ত স্থান থেকে সরিয়ে ভিন্ন ভিন্ন স্থানে রাখার পরিকল্পনা করা হয় এবং এম্বেসি কর্তৃপক্ষকে দেখানোর জন্য উক্ত নারীদের তাৎক্ষণিক সুন্দর পরিবেশে এনে রাখা হয় বলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম 'ইমু'তে ভিডিও/অডিও কলে জানায় নির্যাতিতরা। এক্ষেত্রে তাদের উদ্ধারে সংশ্লিষ্টদের জরুরি হস্তক্ষেপের দাবি জানান বক্তারা।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজুলাই - ১৪
ফজর৩:৫৩
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
১০৪৪১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.