নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৭ মে ২০১৮, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৩০ শাবান ১৪৩৯
নবাবপুরে বাড়ি দখল নিতে হামলা
স্টাফ রিপোর্টার
রাজধানীর নবাবপুর রোডের একটি বাড়ি দখল নেয়ার জন্য হামলার ঘটনা ঘটেছে। শুধু তাই নয় বাড়ির মালিক বৃদ্ধ আব্দুর রহমানের দুই হাত ভেঙে দিয়েছে হামলাকারীরা। একই সাথে তার স্ত্রী মনি রহমানের মাথা ফাটিছে। বাদ দেয়নি ছেলে শাওনকে। গতকাল দুপুরে হাত, মাথা ব্যান্ডেজ করা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম নিয়ে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) কার্যালয়ে এসে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

জানা গেছে, নবাবপুর রোডের ১৭নং বাড়িটি দখল নিতে হামলা চালায় বৃদ্ধ আব্দুর রহমানের ভাই-বোন ও স্বজনরা। গত মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটলেও পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা না নেয়ার অভিযোগ তাদের। আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রীর অভিযোগ, ঘটনার পর তারা একাধিকবার থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কার্যালয়ের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও মামলা করতে পারেননি। পুলিশ উল্টো হামলাকারীদের মামলা নিয়ে সেই মামলায় তাদের সন্তান শাওনকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় দুই পক্ষই মামলা করেছে। দুই মামলায় দুই পক্ষের ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আব্দুর রহমান বলেন, এক সময় তার মামা খুব অসুস্থ ছিলেন। তার সেবা-যত্ন করার মতো কেউ ছিল না। তিনি মামার সেবা করতেন। মামা মারা যাওয়ার সময় উত্তরাধিকার না থাকায় তাকে সম্পত্তি (বাড়ি ও জমি) দিয়ে যান। প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর দ্বিতীয় বিয়ে করে স্ত্রী মনি, তার দুই সন্তান এবং আগের ঘরের দুই সন্তান নিয়ে ঐ বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। কিন্তু ভাই কেনান, বোন সেতারা প্রায়ই সম্পত্তির ভাগ চাচ্ছিল। তাদের বলেছি, তৃতীয় তলা বিশিষ্ট ভবনটি আরো কয়েক তলায় বৃদ্ধি করে সবাইকে একটি করে ফ্ল্যাট দিবো। কিন্তু তারা তা মানছে না। গত মঙ্গলবার দুপুরে কেনান, সেতারা, তাদের মেয়ে জামাই আহাম্মদ, ছেলে আসলাম ও সালাম, ভাতিজা মিলটন, ভাতিজী সুমি, সুমির মা মেরি দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালায়। রড, হকস্ট্রিক দিয়ে পিটিয়ে তাদের জখম করে। তার দুই হাত ভেঙে দেয়, আঘাতে দাঁত পড়ে যায়। তার স্ত্রী ও ছেলেকেও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

আহত মনি রহমান বলেন, ঘটনার পর মামলা করতে বংশাল থানায় গেলে পুলিশ বলে, আপনারা তো আহত। আগে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেন। আমরা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে মিন্টুরোড ডিবি কার্যালয়ে যাই। তারা আবার থানায় পাঠায়। তখন পুলিশ মামলা নিবে বলে বসিয়ে রাখে। সন্ধ্যার পর ছেলে শাওন ও মেয়ে শ্রাবণকে মামলা করতে থানায় রেখে তারা আবার হাসপাতালে যান। এই ফাঁকে হামলাকারীরা আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করে। পুলিশ তাদের মামলা নিয়ে থানায় বসে থাকা শাওনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার আতঙ্কে আহতাবস্থায় তারাও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

জানতে চাইলে বংশাল থানার ওসি সাহিদুর রহমান বলেন, পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে নিজেদের মধ্যে মারামারি হয়েছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষই মামলা করেছে। মামলা নং ৩১, ৩২। তার দাবি, আব্দুর রহমানের ছেলে শাওন বাদী হয়ে মামলা করেছে। সেই মামলায় শওকত আলী, কেনান, সেতারা, আসলাম ও সুমনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর শওকতদের মামলায় শাওনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুই মামলায় গ্রেফতার সবাইকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২০
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫১
মাগরিব৫:৩২
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৮৪১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.