নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৭ এপ্রিল ২০১৮, ৪ বৈশাখ ১৪২৫, ২৯ রজব ১৪৩৯
পুতিনের হুঁশিয়ার : ফের হামলা হলে বিশ্বব্যাপী নৈরাজ্য
জনতা ডেস্ক
সিরিয়ায় ফের পশ্চিমারা হামলা চালালে বৈশ্বিক গোলযোগ তৈরি হবে বলে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন। বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে নিজের নাগরিকদের ওপর রাসায়নিক হামলার অভিযোগ এনে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পরদিন রোববার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে টেলিফোন আলাপে এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। ক্রেমলিনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, পশ্চিমাদের এই হামলা সিরিয়ায় গত সাত বছর ধরে চলমান গৃহযুদ্ধের অবসানে রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছানোর সম্ভাবনাকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে বলে পুতিন ও রুহানি একমত হয়েছেন।

ভস্নাদিমির পুতিন বিশেষভাবে জোর দিয়েছেন যে, জাতিসংঘ সনদের লংঘন করে এই ধরনের পদক্ষেপ যদি অব্যাহত থাকে তাহলে অবশ্যই তা আন্তর্জাতিক পরিসরে গোলযোগ তৈরি করবে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন ওয়াশিংটন বলছে, এক সপ্তাহ আগে দৌমায় রাসায়নিক হামলার জবাবে সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র কর্মসূচির প্রাণ কেন্দ্রে এই হামলা চালানো হয়েছে। হামলায় অংশ নেওয়া তিন দেশই দাবি করেছে, তাদের এই হামলার পেছনে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে উৎখাত বা দেশটির গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপের অভিপ্রায় তাদের ছিল না। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সফল হয়েছে বলে প্রশংসা করলেও আগ্রাসন আখ্যায়িত করে এর নিন্দা জানিয়েছে দামেস্ক ও তার মিত্ররা। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই লাভরভ এই হামলাকে বলেছেন 'অগ্রহণযোগ্য ও বেআইনি'। তবে রোববার পুতিনের এই সতর্ক বার্তা আসার কিছুক্ষণ আগেই রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই রিবাকোভ বলেছেন, পশ্চিমাদের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন সব প্রচেষ্টা নেবে মস্কো।

পশ্চিমা দেশগুলো জাতিসংঘে যে প্রস্তাবে তুলছে তার সঙ্গে রাশিয়া কাজ করবে কি না সে প্রশ্নের জবাবে তিনি তাস বার্তা সংস্থাকে বলেন, এখন রাজনৈতিক পরিস্থিতি খবুই উত্তেজনাপূর্ণ, পরিবেশ খুবই উত্তপ্ত। তাই আমি এ বিষয়ে কিছু বলব না। বর্তমানের অশান্ত পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে সব সুযোগ ব্যবহার করে আমরা শান্তভাবে ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করব।

এদিকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ভস্নাদিমির এরমাকোভ বলেছেন, ওই হামলার পর কৌশলগত স্থিতিশীলতা নিয়ে মস্কোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়েছে ওয়াশিংটন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এদিকে দামেস্কে রাসায়নিক অস্ত্র নিরোধ আন্তর্জাতিক সংস্থা-ওপিসিডবিস্নউর পরিদর্শকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন সিরিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল মেকদাদ। রাশিয়া ও সিরিয়ার জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে তিন ঘণ্টার ওই বৈঠক হয়। আগামী ৭ এপ্রিল দৌমায় সন্দেহভাজন গ্যাস হামলাস্থল পরিদর্শন করার কথা ছিল ওপিসিডবিস্নউর পরিদর্শকদের। সে পর্যন্ত অপেক্ষা না করে রাসায়নিক হামলার অভিযোগ তুলে সিরিয়ায় পশ্চিমাদের এই হামলার কঠোর সমালোচনা করছে মস্কো।

রাশিয়াবিরোধী প্রচার

সিরিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে দৌমায় রাসায়নিক হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে মস্কো বলছে, রাশিয়াবিরোধী মনোভাব ছড়িয়ে দিতে এই নাটক সাজিয়েছে যুক্তরাজ্য। তবে পশ্চিমারা উত্তেজনা না বাড়িয়ে কমানোর পক্ষে বলে ইঙ্গিত এসেছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন উভয়ই বলেছে, শনিবারের তাদের এই সামরিক পদক্ষেপের লক্ষ্য বাশার আল-আসাদ নয়, শুধু তার রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের ওপর। যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বিবিসিকে বলেছেন, পশ্চিমা শক্তিগুলোর আরও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পরিকল্পনা নেই, তবে দামেস্ক ফের রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করলে করণীয় নিয়ে ভাববে তারা।

এটা সরকারের পরিবর্তনের জন্য নয়ৃএটা সিরিয়ায় সংঘাতের ধারা পরিবর্তনের চেষ্টা নয়। সিরিয়ায় সংঘাত নিরসনে সমঝোতার জন্য আসাদকে চাপ প্রয়োগের ক্ষমতা একমাত্র রাশিয়ার আছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নিকি হেলি বলেন, সম্পর্ক 'খুবই নাজুক'। তবে যুক্তরাষ্ট্র এখনও সম্পর্কোন্নয়নের আশা করছে। হেলি বলেন, লক্ষ্য অর্জন না হওয়া পর্যন্ত সিরিয়া থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করবে না যুক্তরাষ্ট্র। রোববার ফঙ্ নিউজকে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি লক্ষ্য রয়েছে-কোনোভাবে যেন রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার না হয়, যা যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থের প্রতি হুমকি সৃষ্টি করে; ইসলামিক স্টেটকে পরাজিত এবং ইরানের কর্মকা-ের ওপর নজরদারি। জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে অভিযানে সহযোগিতার লক্ষ্যে সিরিয়ায় প্রায় দুই হাজার সৈন্য মোতায়েন করেছিল যুক্তরাষ্ট্র, যাদের প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছিলেন ট্রাম্প।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীএপ্রিল - ২০
ফজর৪:১৪
যোহর১১:৫৮
আসর৪:৩১
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪১
সূর্যোদয় - ৫:৩৩সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৩৫.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.