নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ মার্চ ২০১৪, ৬ চৈত্র ১৪২০, ১৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৫
খুলনায় বিশুদ্ধ পানি সঙ্কট ২৫ লাখ মানুষ ভোগান্তির শিকার
খুলনা প্রতিনিধি
চলতি বছর গরম মৌসুমে খুলনা মহানগরীসহ জেলার দীঘলিয়া, ফুলতলা, ডুমুরিয়া, রূপসা ও বটিয়াঘাটা উপজেলায় প্রায় ২৫ লাখ লোক বিশুদ্ধ পানি সংকটে ভুগবে। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর খুলনার কর্মকর্তারা এমন আশংকার তথ্য দিয়ে জানিয়েছেন, ভুগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হবে। প্রয়োজনের তুলনায় কম বৃষ্টি, নদীর নাব্যতা হরাস, নদীর উৎসমুখ বাধাগ্রস্ত হওয়া, ভুগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের তুলনায় তা' স্তরে জমা না হওয়া এবং পানির স্তর নিচে নামার মূল কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন তারা। খুলনা সিটি কর্পোরেশন ও আদমশুমারির তথ্য অনুযায়ী, মহানগরসহ ৫ উপজেলায় প্রায় ২৫ লাখ লোকের বসবাস। এর মধ্যে শুধু মহানগরীতেই বসবাস করে প্রায় ১৬ লাখ লোক। এ বিপুল জনগোষ্ঠীর পানির চাহিদা নির্ভর করতে হয় একমাত্র গভীর নলকূপের ওপর। তবে গরম মৌসুমে পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় পানি পাওয়া যায় না।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের দেয়া তথ্য মতে, দীঘলিয়া, ফুলতলা, ডুমুরিয়া, রূপসা ও বটিয়াঘাটা উপজেলায় ২০১৩ সালে পানির স্তর নিচে নামে গড়ে ২১ ফুট। ২০১২ সালেও ওই গড় অপরিবর্তিত ছিল। ২০১১ সালে পানির স্তর নিচে নেমে গিয়েছিল প্রায় ২৬ ফুট। সূত্রটি জানায়, গত বছর বটিয়াঘাটায় পানির স্তর নেমে গিয়েছিল প্রায় ১৯ ফুট। এছাড়া ডুমরিয়ায় ১৭ দশমিক ৫ ফুট, ফুলতলায় ১৯ দশমিক ৮ ফুট, রূপসায় ১৯ ফুট ও দীঘলিয়ায় ২০ দশমিক ৯ ফুট। ফলে এসব এলাকার নলকূপ দিয়ে পানি উঠানো সম্ভব হয়নি। এই ৫ উপজেলার বিপুল জনগোষ্ঠীকে পুকুরের পানির ওপর নির্ভর করতে হয়। তবে অধিকাংশ পুকুরের পানি খাওয়ার অযোগ্য। পুকুরের পানি শোধনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা এসব উপজেলায় নেই। ৫ উপজেলায় পানি শোধনের জন্য সরকার পিএসএফ ব্যবস্থা করেছে মাত্র ১৮টি যা প্রয়োজনের তুলনায় নগন্য।

পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়া সুপেয় পানি সংকটের অন্যতম কারণ উল্লেখ করে খুলনা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গ্রামীণ পানি সরবরাহ বিভাগের স ম এনায়েত কবীর জানান, প্রাকৃতিক ও মনুষ্য সৃষ্টিসহ বিভিন্ন কারণে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাচ্ছে।

খুলনা ওয়াসার সহকারী প্রকৌশলী মারুফ হোসেন বলেন, পানির স্তর নিচে না নামলে পানির সমস্যা হবে না।

পানি সংকট প্রসঙ্গে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফ-উজ জামান বলেন, ভূগর্ভস্থ পানি দিয়ে কখনো পানি সংকট মোকাবিলা করা যাবে না। এতে একদিকে পরিবেশ বিপর্য হবে, অন্যদিকে সংকট আরো বাড়বে। এ সংকট নিরসনে প্রাকৃতিক উৎসের ওপর নির্ভরশীলতার বিকল্প নেই। এছাড়াও উপজেলা পর্যায়ে পুকুরের ওপর নির্ভরতা বাড়াতে হবে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত