নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪২০, ২৬ রবিউস সানি ১৪৩৫
কমলছড়িতে ১৪৪ ধারা জারি
খাগড়াছড়ির পাহাড়ি-বাঙালি সংঘর্ষে আহত ১৫, ১ কিশোর নিখোঁজ
খাগড়াছড়ি থেকে নুরুল আলম
খাগড়াছড়িতে উপজাতীয় গৃহবধূ সবিতার মৃত্যু ইস্যুতে মঙ্গলবার সংঘর্ষের পর গতকাল বুধবার ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে খাগড়াছড়ির কমলছড়ি-ভূয়াছড়ি এলাকা। এতে পাহাড়ি-বাঙালি সংঘর্ষে উভয় পক্ষে আহত হয়েছে অনন্ত ১৫ জন। পরিস্থিতি অবনতির আশংকায় কমলছড়ি ইউনিয়ন ও মহলছড়ি উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার প্রথম দফায় সংঘর্ষের পর ছাগল আনতে গেলে কয়েকজন উপজাতীয় যুবক শহীদুল নামের এক কিশোরকে অপহরণ করে গিয়ে যায়। তাকে খুঁজতে গিয়ে ভুয়াছড়িস্থ বেতছড়ি খ্রিস্টানপাড়া এলাকায় সংঘর্ষ বাধে। এতে পাহাড়ি বাঙালিদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এখনো খোঁজ মেলেনি অপহৃত কিশোরের।

গতকাল বুধবার খাগড়াছড়ি জেলা সদরের কালা বর্ণাল ও বেতছড়ি এলাকায় হামলায় অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে সাতজনকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ নিয়ে গত দু'দিনে ২১ জন আহত হয়। হামলার জন্য পাহাড়ি ও বাঙালিরা পরস্পরকে দায়ী করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনা ও বিজিবি টহল জোরদার করা হয়েছে।

আহতরা হচ্ছেন রিপন হোসেন (৪২), রেজাউল করিম (৩০), শহিদ বিশ্বাস (৪৫), জাহেদুল ইসলাম (২৬), শাহ আলম (৪২), বিলব জ্যোতি চাকমা (৩২) ও মামনী চাকমা (১৭), বিপ্লব জ্যোতি চাকমা (৩২), রাঙ্গাদেবী চাকমা (৪৫), আরমান (১৮) ও কালু (১৯)।

বাঙালিদের অভিযোগ, বুধবার সকালে বাগানে কাজ করতে গেলে কয়েকশ পাহাড়ি দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও গুলি নিয়ে হামলা করে। হামলায় তাদের কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছে। ছয়জনকে খাগড়াছড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে দা দিয়ে কুপিয়ে শহিদ বিশ্বাসের (৩৫) পায়ের রগ কেটে দেয়া হয়েছে এবং গুলি করে রিপন (৪৫) এর চোখ নষ্ট করে দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে, পাহাড়িদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, বাঙালিদের হামলায় তাদের তিনজন আহত হয়েছে।

এর মধ্যে বিপুল জ্যোতি চাকমা (৩৫) ও রম্বা দেবী চাকমাকে (৫৫) খাগড়াছড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খাগড়াছড়ি সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ, সেনাবাহিনী ও বিজিবি মোতায়েন রয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টা থেকে শুক্রবার রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারার এই নির্দেশ বহাল থাকবে বলে জানা গেছে।

অপরদিকে, মিথ্যা অপপ্রচার বন্ধ ও সবিতা চাকমার হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের দাবিতে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ পৌর শাপলা চত্বরে মানববন্ধন করে। বাড়ি ফেরার পথে কমলছড়ি এলাকায় কয়েকজন পাহাড়ি যুবক হামলা চালালে দু'পক্ষের মধ্যে হামলা ও পাল্টা হামলা শুরু হয়। তাৎক্ষণিক পুলিশ, সেনাবাহিনী ও বিজিবি ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে পুলিশ ও স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, সবিতা চাকমা ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তে গলাটিপে হত্যা করার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি কমলছড়িতে সবিতা চাকমা (৩০) নামের এক গৃহবধূ খুন হন। নারী অধিকার সংগঠন, পাহাড়ি আঞ্চলিক সংগঠনগুলো এই হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। সংগঠনের পক্ষ হতে দাবি করা হয়েছে, কতিপয় ট্রাক্টর চালক ও বালু শ্রমিকরা ধর্ষণের পর এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। এদিকে, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ঘটনার প্রতিবাদে দুপুরে খাগড়াছড়ি শহরের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 26 file is encrypted or is not a database' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7