নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৯ ফাল্গুন ১৪২৪, ৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৯
ব্যাংকিং খাত নিয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ বাণিজ্যমন্ত্রীর
অর্থনৈতিক রিপোর্টার
ব্যাংকিং খাত নিয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ব্যাংকিং খাতে ঋণ অনিয়ম অনেক দেশেই হয়। আমাদের এখানেও হচ্ছে। তবে ব্যাংক খাত নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বিজিএমই আয়োজিত 'তৈরি পোশাক শিল্পের সম্প্রসারণ এবং সহজীকরণ' শীর্ষক কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, যদিও এ খাত (ব্যাংক খাত) নিয়ে অর্থমন্ত্রীর কথা বলার কথা। তারপরও সরকারে আছি, তাই আমাদেরও কথা বলতে হয়। আশা করবো, অর্থ মন্ত্রণালয় ব্যাংক খাত নিয়ে বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

তিনি বলেন, ব্যাংকিং খাত নিয়ে আমাদের সতর্ক হতে হবে এবং বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। আজকে (গতকাল) শুধু বাংলাদেশেই নয় ভারতেও একজন বড় ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়েছে। তাদের বিরোধীদলীয় নেতা সে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করেছে। অর্থাৎ সব দেশেরই ব্যাংকিং খাত নিয়ে যত্নবান হওয়া প্রয়োজন। এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নেবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশে ব্যাংক ঋণ নিয়ে কিছু সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। খেলাপিদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। অনেকে জেলে আছে। কাউকে ছাড় দেয়া হয় নাই। আমরা ক্ষমতায় থেকে ঋণ দিতে সুপারিশ করি না। কেউ বলতে পারবে না। ব্যাংক তাদের নিয়মে ঋণ দিচ্ছে। তবে ব্যাংকগুলোরে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে তাদের উচিত সঠিক নিয়ম মেনে ঋণ প্রদান করা। ভালো গ্রাহককে ঋণ দেয়া। কারণ ব্যাংক ঋণ না দিলে ইন্ডাস্ট্রি বাড়বে না। ব্যাংকিং খাতের কারণে ব্যবসা প্রসার হচ্ছে। বড় বড় ইন্ডাস্ট্রি ব্যাংকের টাকা দিয়ে হচ্ছে। তবে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক হতে হবে। সঠিক জায়গায় ঋণ দিচ্ছি কিনা তা দেখতে হবে।

পানামা পেপার্স ও প্যারাডাইস পেপার কেলেঙ্কারিতে যাদের নাম এসেছে তাদের বিষয়ে সরকার কোনো পদক্ষেপ নেবে কিনা জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মানিলন্ডারিং বা অর্থপাচার বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক), বাংলাদেশ ব্যাংক ও অন্যান্য সংস্থা কাজ করছে। এর আগে মানিলন্ডারিং অভিযোগে অনেকের বিষয়ে মামলা হয়েছে। সাজাও হয়েছে। পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে যাদের নাম এসেছে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, বিজিএমইএ'র ভাইস প্রেসিডেন্ট (অর্থ) মোহাম্মদ নাছির প্রমুখ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীএপ্রিল - ৬
ফজর৪:২৯
যোহর১২:০২
আসর৪:৩০
মাগরিব৬:২০
এশা৭:৩৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৬:১৫
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৯৯২৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.