নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ৬ ফাল্গুন ১৪২৩, ২০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮
আরো এক সূচকে ভারত-পাকিস্তানকে টপকালো বাংলাদেশ
অর্থনৈতিক রিপোর্টার
খাদ্য এবং বৈশ্বিক শান্তি সূচকের পর এবার আরও একটি সূচকে ভারত এবং পাকিস্তানকে টপকে গেল বাংলাদেশ। এবার অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে (ইকোনমিক ফ্রিডম ইনডেঙ্) ভারত এবং পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে ১২৮তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে পাকিস্তানের অবস্থান ১৪১ এবং ভারত রয়েছে ১৪৩তম অবস্থানে। এর আগে খাদ্য সংকটের ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশের ওপর জরিপকৃত গ্লোবাল হাংগার ইনডেঙ্রে (জিএইচআই) তালিকা অনুযায়ী ভারত এবং পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। ১১৮টি দেশের ওপর ভিত্তি করে ওই তালিকা প্রকাশ করা হয়। সেই তালিকা অনুযায়ী, খাদ্য সংকটে ভারত এবং পাকিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশ বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। অর্থাৎ ভারত এবং পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশে অভুক্ত মানুষের সংখ্যা তুলনামূলক কম। এর আগে বৈশ্বিক শান্তি সূচকে (জিপিআই) ১৬৩টি দেশের মধ্যেও ভারত এবং পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। বিশ্ব শান্তি সূচকে পাকিস্তান ১৫৩ এবং ভারত ১৪১তম অবস্থানে রয়েছে। অপরদিকে প্রতিবেশি দুই দেশকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৩তম।

অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে সারা বিশ্বে ১২৮তম স্থান দখল করলেও এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে বাংলাদেশের অবস্থান ২৮তম এবং স্কোর ৫৫। অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকের প্রথম দিকে অবস্থান করছে হংকং, সিঙ্গাপুর এবং নিউজিল্যান্ড। এই তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তানের অবস্থান ১৬৩তম, মালদ্বীপ ১৫৭তম, নেপাল ১২৫তম, শ্রীলঙ্কা ১১২তম এবং ভুটানের অবস্থান ১০৭তম। আমেরিকাভিত্তিক এক থিংকট্যাংকের তৈরিকৃত প্রতিবেদনে বিভিন্ন দেশের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকের বার্ষিক ফলাফলে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিগত পাঁচ বছরে ভারতের অর্থনীতি ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেলেও প্রবৃদ্ধি নীতির কোনো পরিবর্তন হয়নি। এই নীতিই অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সংরক্ষণ করে। ওই প্রতিবেদনে ভারতকে সবচেয়ে পরাধীন অর্থনীতির দেশ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এর আগে অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে ভারতের অবস্থান ছিল ১২৩তম। বৈশ্বিক বাণিজ্যে ভারত বেশ শক্তিশালী অবস্থানে থাকলেও দুর্নীতি, অনুন্নত অবকাঠামো এবং জনসম্পদের দুর্বল ব্যবস্থাপনা সামগ্রিক উন্নয়নকে ব্যাহত করছে।

অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে বিগত বছরের তুলনায় ৫ দশমিক ৪ পয়েন্ট বেশি অর্জন করে ৫৭ দশমিক ৪ পয়েন্ট পেয়ে চীন ১১১তম অবস্থানে রয়েছে। আর যুক্তরাষ্ট্র ৭৫ দশমিক ১ পয়েন্ট পেয়ে রয়েছে ১৭তম অবস্থানে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীএপ্রিল - ২৮
ফজর৪:০৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩১
মাগরিব৬:২৮
এশা৭:৪৫
সূর্যোদয় - ৫:২৭সূর্যাস্ত - ০৬:২৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫৩২.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.