নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৩০ মাঘ ১৪২৫, ৬ জমাদিউস সানি ১৪৪০
যুক্তরাষ্ট্র : আরেকটি অচলাবস্থা এড়ানোর আলোচনা থমকে গেছে
জনতা ডেস্ক
সীমান্ত নিরাপত্তা নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছানো ও সরকারের আরেকটি অচলাবস্থা এড়ানোর লক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিক ও ডেমোক্রেট আইনপ্রণেতাদের মধ্যে চলমান আলোচনা থমকে গেছে।

মধ্যস্থতাকারীরা সোমবারের মধ্যে একটি চুক্তিতে পৌঁছে প্রস্তাবাকারে তা শুক্রবারের মধ্যে পাস করাতে চাইছিলেন; কারণ যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলা আংশিক অচলাবস্থা অবসানে ২৫ জানুয়ারিতে হওয়া তিন সপ্তাহের চুক্তিটির সময়সীমা শুক্রবার শেষ হবে। নতুন কোনো সমঝোতা চুি্ক্ত ছাড়া শুক্রবারের সময়সীমা পার হলে ফের আংশিক অচলাবস্থায় পড়বে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। এর আগে কাটানো একটানা ৩৫ দিন আংশিক অচলাবস্থা একটি রেকর্ড।

যুক্তরাষ্ট্র-মেঙ্েিকা সীমান্তে দেয়াল তোলার জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবিকৃত অর্থবিলই দুই পক্ষের মতভেদের কেন্দ্রে অবস্থান করছে বলে খবর বিবিসি, বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

অভিবাসীদের আটক করার নীতি নিয়ে ডেমোক্রেট ও রিপাবলিকান আইনপ্রণেতাদের মধ্যে বিরোধের পর চলমান আলোচনা থমকে যায় বলে রোববার জানিয়েছেন রিপাবলিকান সিনেটর রিচার্ড শেলবি। আলোচনায় রিপাবলিকানদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি।

ডেমোক্রেটরা চায় মার্কিন ইমিগ্রেশন এ- কাস্টমস এনফোর্সমেন্টের (আইসিই) ডিটেনশন সেন্টারগুলোতে যে পরিমাণ বিছানা আছে তা কমানো হোক এবং আইসিই কর্মকর্তারা ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও যারা অবস্থান করছে তাদের বদলে যেসব অভিবাসীর বিরুদ্ধে অপরাধের রেকর্ড আছে তাদের আটক করুক।

এসব শর্তের বিনিময়ে রিপাবলিকানদের সীমান্ত দেয়ালের জন্য কিছু অর্থ ছাড়ের প্রস্তাব দিয়েছে তারা। কিন্তু তা ট্রাম্পের প্রস্তাবিত সীমান্ত দেয়াল নির্মাণের জন্য যে অর্থ প্রয়োজন (৫.৭ বিলিয়ন ডলার) তার চেয়ে অনেক কম। রোববার ফঙ্ নিউজকে শেলবি বলেছেন, আমরা সেখানে পৌঁছতে পারব বলে মনে হচ্ছে না। চুক্তির সম্ভাবনা ৫০-৫০। অচলাবস্থার অপচ্ছায়া সবসময়ই ঘিরে ছিল।

ডেমোক্রেট নেতারা মধ্যস্থতাকারীদের একটি সমঝোতায় পৌঁছতে বাধা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ট্রাম্প। গত মাসে তিনি আলোচনাকে 'সময়ের অপচয়' বলে মন্তব্য করেছিলেন।

নতুন করে ফের অচলাবস্থা শুরু হলে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি, পররাষ্ট্র, কৃষি ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ফের অর্থ সংকটে পড়বে। এর ফলে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রায় আট লাখ কর্মচারী বেতন পাবে না।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২০
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫১
মাগরিব৫:৩২
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৭৯০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.