নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১
মহামারি করোনা ভাইরাস : মূল উৎস সাপ
জনতা ডেস্ক
পরিস্থিতি অত্যন্ত ভয়াবহ। এই পরিস্থিতিতে জরুরি বৈঠকও করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষ ক্ষমতাপ্রাপ্ত বিশেষজ্ঞদের একটি কমিটি। চীনা ভাইরাসের ভয়াবহ বিস্তারে বিশ্বে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি অবস্থা জারির মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে কিনা, সে বিষয়েও শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। উল্লেখ্য, গত দশকে মাত্র পাঁচবার বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জরুরি মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল।

আন্তর্জাতিক মহলে উদ্বেগ বাড়িয়ে চীনের বাইরে ক্রমশ ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। এর আগে চীনের বাইরে থাইল্যান্ড ও জাপানে তিন জনের সংক্রমণের খবর মিলেছিল। এখন সুদূর মার্কিন মুলুকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন এক ভারতীয় মহিলাও। পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হয়ে উঠছে। এই পরিস্থিতিতে সামনে এসেছে আশ্চর্যজনক এক তথ্য। চীনের দুই প্রজাতির সাপ থেকেই করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের প্রতিবেদন অনুযায়ী, চীনে রহস্যজনকভাবে করোনা ছড়িয়ে পড়ার মূল উৎসই হচ্ছে বিষধর চীনা ক্রেইট এবং কোবরা সাপ। করোনাভাইরাস বাতাসে মিসে প্রাথমিকভাবে ন্তন্যপায়ী প্রাণী এবং পাখির শ্বাসযন্ত্রে সংক্রামণ করে। এর ফলে প্রাথমিকভাবে জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্ট উপসর্গ হিসেবে দেখা দেয়। চীনে করোনা ভাইরাস মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় নববর্ষ উদযাপন বাতিল করেছে দেশটির সরকার। চীনের উহানের পর হুয়াংগ্যাংয়ে সতর্কতা জারি করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমের উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স। এর আগে ২০১৯ সালে চীনের হুয়ান শহরে প্রথম করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি হয়। যা খুবই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এ শহর থেকে ভ্রমণ করা যাত্রীদের থেকে অন্যদের মাঝেও ভাইরাসটি ছড়িয়ে যায়। চীন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশকিছু দেশে করোনা ছড়ায়। চীনে নববর্ষ উদযাপন বাতিল : এদিকে চীনে করোনা ভাইরাস মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় নববর্ষ উদযাপন বাতিল করেছে দেশটির সরকার। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে খবর প্রকাশ করেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

এদিকে চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সকল ধরনের গণপরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এছাড়া শহরটিতে বসবাসরত সব জনগণকে বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করেছে এবং জনসমাগম এলাকা এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ভাইরাসটি দ্বারা ৬০০ জনের বেশি আক্রান্ত হয়েছে এবং ১৭জন মারা গেছে বলে স্বীকার করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। তবে বেসরকারি হিসেবে আক্রান্তের পরিমাণ কয়েকগুণ। চীনের উহান থেকে উৎপন্ন এই ভাইরাস নতুন করে ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী। চীনের অন্যান্য প্রদেশ ছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া ও থাইল্যান্ডের পর যুক্তরাজ্যেও একজন আক্রান্তকে শনাক্ত করা হয়েছে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ২৮
ফজর৩:৪৬
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪৩
এশা৮:০৫
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৮
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৯৯৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.