নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১
ছুটির দিনে জমজমাট বাণিজ্যমেলা
স্টাফ রিপোর্টার
সময় যত শেষ হয়ে আসছে ততই জমে উঠছে ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। সব বয়সী মানুষের ভিড়ে মেলা যেমন জমজমাট হয়ে উঠেছে, তেমনি বেড়েছে পণ্য বিক্রির পরিমাণ। গতকাল শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় মেলা প্রাঙ্গণের চিত্র ছিলো সপ্তাহের অন্যসব দিনের তুলনায় ভিন্ন। সকালের হালকা শীত উপেক্ষা করে মেলায় এসেছেন হাজারো দর্শনার্থী। তাতে দুপুর গড়ানোর আগেই ক্রেতা-দর্শনার্থীতে পরিপূর্ণ হয়ে উঠে মেলার মাঠ। এ যেন জনসমুদ্রে পরিণত হয় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত মেলা প্রাঙ্গণ। সরেজমিন দেখা যায়, মেলার প্রধান ফটক উন্মুক্ত করে দেওয়ার আগেই সারিবদ্ধভাবে অপেক্ষা করছেন বিভিন্ন স্টল-প্যাভিলিয়নে কর্মরতরা। সঙ্গে চোখে পড়ার মতো ছিলো দর্শনার্থী। এরইমধ্যে টিকিট সংগ্রহ করে একে একে মেলার মাঠে প্রবেশ করতে থাকেন দর্শনার্থীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে তাদের সংখ্যা। দুপুর ১২টার

আগেই যেন কানায় কানায় ভরে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ। অন্যদিকে সপ্তাহের অন্যদিনে ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীর সংখ্যা বেশি লক্ষ্য করা গেলেও গতকাল শুক্রবার তা ভিন্ন। এদিন দর্শনার্থীর চেয়ে ক্রেতার সংখ্যা বেশি হয় বলে বিক্রেতা সূত্রে জানা যায়। মেলা প্রাঙ্গণে দর্শনার্থী প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় পণ্য বেচা-বিক্রি। আগতদের অনেকেই স্টল কর্তৃপক্ষের কাছে পণ্যের গুণাগুণ বিষয়ে জানতে চান। তা জেনে অনেকেই কেনা-কাটায় সময় কাটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। অপরদিকে বেশি ক্রেতা-দর্শনার্থীর আগমনে হিমশিম খেতে হয় দোকানদারদের। ক্রেতার তুলনায় তাদের সংখ্যা হাতেগোনা হওয়ায় সকালে বেগ পেতে হয়। তবুও তারা ক্রেতার চাহিদা পূরণে পছন্দের পণ্য বুঝিয়ে দেওয়ায় ব্যস্ত থাকছেন। মোহাম্মদপুর থেকে পরিবার নিয়ে মেলায় এসেছিলেন শাহেলা আক্তার। তিনি বলেন, মেলায় কেনা-কাটা করতে সকালের সময়কে বেছে নিয়েছিলাম। কিন্তু সকাল থেকেই দর্শনার্থীর আগমন, বেশি তবু পণ্য কিনতে হবে। ফার্নিচার কেনার উদ্দেশে পুরানো ঢাকা থেকে মেলায় এসেছিলেন হারুন। তিনি বলেন, ভালোমানের পণ্য আর দেখে নেয়ার সুযোগ আছে মেলায়। এজন্য সকাল সকাল মেলায় এসেছি। পণ্য কেনা হয়েছে, এবার বাসায় ফেরার পালা। মেলায় বসুন্ধরা নুডলসের ব্র্যান্ড প্রোমো সবুজ দাস বলেন, আমাদের স্টলে প্রতিদিন দর্শনার্থী বেশি আসেন। সাপ্তাহিক ছুটির দিনে দর্শনার্থীর সংখ্যা তুলনামূলক বেশি, বিক্রির পরিমাণও বেশি। বাণিজ্যমেলা উপলক্ষে এবার আমরা নুডলসে ছাড়ের পাশাপাশি বিভিন্ন উপহার নিয়ে এসেছি। আগামীতে আরও ছাড় দেওয়া হবে। দর্শনার্থীর চাহিদা বিবেচনায় আমরা রান্না করা নুডলস সরবরাহ করছি। প্যাকেট নুডলসের পাশাপাশি রান্না করা নুডলসেও ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি ক্রেতা-দর্শনার্থীর।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ২৮
ফজর৩:৪৬
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪৩
এশা৮:০৫
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৮
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪০১২.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.