নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১
প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা
হাটহাজারীতে মাছ বাজারে দালালদের নৈরাজ্য নিয়মিত বাজার মনিটরিং নেই
হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
হাটহাজারী পৌর সদরের কাঁচা তরিতরকারি ও মাছ বাজারে ফড়িয়াদের (দালাল) নৈরাজ্য চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সংঘবদ্ধ ফড়িয়া (দালাল) সিন্ডিকেটের সদস্যরা মাছ ও কাঁচা বাজারকে জিম্মি করে ক্রেতাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত দাম হাকিয়ে নিচ্ছে এবং অধিক মুনাফার জন্য ফরমালিন মিশানোর পাশাপাশি ঘণ্টার পর ঘণ্টা ড্রাম ভর্তি পানিতে মাছগুলো ভিজিয়ে রেখে বিক্রি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায়, গ্রামের মানুষ এক সময় পুকুর ,খাল-বিল থেকে বিভিন্ন প্রকার মাছ ধরে নিজেদের চাহিদা মেটানোর পরে হাট-বাজারেও তাজা মাছ নিয়ে আসতেন বিক্রী করতে। তবে এখন সেরকম দৃশ্য চোখে পড়েনা বললেই চলে। এ সবের কারন বের করতে গিয়ে দেখা যায় গ্রামের ছোট ব্যবসায়ীসহ সাধারণ ক্রেতারা সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়াটা অন্যতম। গ্রামের সহজ সরল কোনো মানুষ এবং প্রকৃত ব্যবসায়ীরা মাছ নিয়ে বাজারে আসলে সংঘবদ্ধ চিহ্নিত দালাল ফড়িয়া সিন্ডিকেটের সদস্যরা কৌশলে তাদেরকে মাছ বিক্রি করতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। মাঝে মধ্যে দুর দুরান্ত থেকে দেশী কোনো মাছ নিয়ে বিক্রেতা আসলেও তাদের কাছ থেকে ন্যায্য মূল্যে মাছ ক্রয়-বিক্রয় করতে মাছ বাজারের ফড়িয়াদের বাধা দেয়ার ঘটনা সবচেয়ে দুঃখ জনক। বিশাল এই বাজারে যে হারে মাছ পাওয়ার কথা সে হারে মাছ নেই বলা যায়। যার কারনে সিন্ডিকেট মাছ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চড়া দামে মাছ ক্রয় করতে হচ্ছে ক্রেতাদের। শক্তিশালী ফড়িয়া সিন্ডিকেট পুরো বাজার জিম্মি করে এক প্রকার ক্রেতাদের উপর নৈরাজ্য চালাচ্ছে। গুরুতর অভিযোগ হচ্ছে সরকারের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্তেও কাচা মাছ বাজারে অহরহ ফরমালিন ব্যবহার করা হচ্ছে। ভাল মাছের সাথে পচা মাছ মেশানো, ড্রাম ভর্তি পানিতে ভিজিয়ে রেখে মাছ বিক্রির ঘটনায় কেউ প্রতিবাদ করতে চাইলে ফড়িয়াদের নিকট উল্টো ক্রেতারা নাজেহালের শিকার হতে হয়। অথচ হাটহাজারী উপজেলার ছোট একটি সাপ্তাহিক বাজার মদনহাট, লালিয়ারহাট ও আমানবাজারে বিশাল মাছ বাজার ক্রেতারা এমন সমস্যায় পড়েননা। সচেতন মহলের অভিযোগ পৌরসভা পর্যায়ে বাজার মনিটরিং তেমন একটা না থাকায় এই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। শুধু যে মাছ ও কাঁচা তরিতরকারির বেলায় এমনটি হচ্ছে তা কিন্তুু নয়,বাজার ঘুরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হাটহাজারী সদরের মুরগি হাটের অবস্থাও একি। এই হাটে নিজের ঘরের দেশী মুরগি নিজেরাই বসে বিক্রী করতে পারেনা। গ্রামের কোনো লোক মুরগি বিক্রী করতে এই হাটে আসতেই দালালরা দৌঁড়ে গিয়ে প্রথমেই মুরগি নিজের আয়ত্তে নিয়ে পরে কম দামে তা বিক্রী করতে বাধ্য করে ঐ দালালের কাছে এমনটিই অভিযোগ করেছেন উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নস্থ চারিয়া গ্রামের মুরাদপুর এলাকা থেকে সদরের মুরগি হাটে মুরগি বিক্রী করতে আসা ৫৭ বছর বয়সি বেলাল মিয়া নামের একজন।

ভুক্তভোগী ক্রেতারা অবিলম্বে যথাযত কর্তৃপক্ষকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে কাচা তরিতরকারি,মুরগি ও মাছ বাজারের নৈরাজ্য বন্ধসহ ফড়িয়াদের(দালাল)বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবি জানিয়েছেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজানুয়ারী - ১৬
ফজর৫:২৩
যোহর১২:০৯
আসর৩:৫৮
মাগরিব৫:৩৭
এশা৬:৫৩
সূর্যোদয় - ৬:৪২সূর্যাস্ত - ০৫:৩২
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৩০৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.