নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১
মোহনপুরে টিপটপ ক্লাবের উদ্যোগে লটারির নামে চলছে জুয়া খেলা
রাজশাহী প্রতিনিধি
রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার শ্যামপুর ভিমনগর টিপটপ ক্লাবের উদ্যোগে মাসব্যাপী বিজয় মেলার র‌্যাফেল ড্রর নামে চালানো হচ্ছে প্রধান আকর্ষণ অবৈধ আলোর ভুবন র‌্যাফেল ড্র লটারির জুয়া খেলা। এই লটারির মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে রাতারাতি ধনী হওয়ার স্বপ্ন দেখানো হলেও মূলত আয়োজকরা জম্পেশ জুয়া বাণিজ্য করছে। তারা শত শত অটোরিকশা নিয়ে গ্রামে গ্রামে গিয়ে টিকিট বিক্রি করছে। গ্রামের লোকজন হুমরি খেয়ে লাইন দিয়ে লটারির টিকিট কিনছেন। এছাড়া পবা-মোহনপুর আসনের এমপি আয়েন উদ্দিনের বাড়ির পাশ্র্বে টিপটপ ক্লাবের মেলায় অবৈধ আলোর ভূবন রাফেল ড্র লটারির জুয়া খেলায় বিপদগামী হচ্ছে যুবসমাজ বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সচেতন মহলের অভিমত, মাত্র কুড়ি টাকা মূল্যর লটারি কিনে রাতারাতি বিত্তশীল হবার আশায় অলোর ভূবন লটারির নামে জুয়ার প্রলোভনের ফাঁদে পা দিয়ে প্রতিনিয়ত অসংখ্য মানুষ নিঃস্ব হতে চলেছে। হতদরিদ্রদের সংসার ভাঙছে, সৃষ্টি হচ্ছে দাম্পত্য কলহ-বিবাদ। এছাড়া মাসব্যাপী বিজয় মেলার নামে লটারির নামে জুয়া চলছে। আলোর ভুবন র‌্যাফেল ড্র লটারির মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে রাতারাতি ধনী হওয়ার স্বপ্ন দেখানোয়, স্বল্প ও নিম্ন আয়ের মানুষ তাদের দিনভর কষ্টার্জিত উর্পাজনের টাকা দিয়ে ২০ টাকা মূল্যর লটারি কিনে নিঃস্ব হয়ে ভগ্ন হৃদয়ে বাড়ি ফিরছে। এবং তাদেরও সংসারে সৃষ্টি হচ্ছে অশান্তি দাম্পত্য-কলহ-বিবাদ। এদিকে লটারির প্রতি আকর্ষণ বাড়াতে ডিস লাইনে (অবৈধ) চ্যানেলে লটারির কর্মকা- সরাসরি সম্প্রচার করছে কয়েকটি ক্যাবল প্রতিষ্ঠান। অপরদিকে প্রায় দেড় শতাধিক অটোচার্জার গাড়িতে মাইকের মাধ্যমে উচ্চ শব্দে লটারির প্রচারণা করায় মেলার আশপাশে বসবাসকারী মানুষ ও শিক্ষার্থীদের চরম ক্ষতি হচ্ছে। স্থানীয়রা জানান, মৌলভি বাজার জেলার রামনগর থানার ছেংরা গ্রামের শ্রী রমাপদ কুমার দাস পবা-মোহনপুর আসনের সংসদ আয়েন উদ্দিন, মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাক হোসেনকে হাত করে রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন ঘাষিগ্রাম ইউপির ভীমনগর স্থানীয় টিপটপ ক্লাবের উদ্যোগে মাসব্যাপী বিজয় মেলার আড়ালে লটারির নামে জুয়া চলছে। মেলার প্রধান আকর্ষণে পরিণত হয়ে উঠেছে আলোর ভুবন র‌্যাফেল ড্র নামের লটারি। মাত্র ২০ টাকা টিকিটের বিনিময়ে, মোটরবাইক, সোনার গহনা ও মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। এলাকায় প্রতিদিন প্রায় দুই শতাধিক কর্মী জেলার বিভিন্ন উপজেলার আনাচে-কানাচে র‌্যাফেল ড্রর টিকিট বিক্রি করছে, শুধু যানবাহন নয় বিভিন্ন স্থানে টেবিল-চেয়ার বসিয়ে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। মাত্র ২০ টাকায় এসব লোভনীয় পুরুস্কার পেতে টিকিট সংগ্রহে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশা, বিশেষ করে নিম্ন আয়ের নারী-পুরুষ এমনকি স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। এতে প্রতিদিন লটারির প্রায় অর্ধকোটি টাকার টিকিট বিক্রি হলেও সামান্য ব্যয় হয় পুরস্কারে। পুরস্কারের লোভে নিম্ন আয়ের মানুষ তাদের সারাদিনের কষ্টার্জিত উপার্জনের টাকা বাড়ি নিয়ে যেতে পারছেন না। অধিকাংশ ক্ষেত্রে অনেক সংসারে দাম্পত্য-কলহ দেখা দিচ্ছে। প্রতিদিন রাত ১০টা থেকে কয়েকটি ক্যাবল প্রতিষ্ঠান সরাসরি (অবৈধ) তাদের নিজস্ব চ্যানেলে লটারি জুয়া সম্প্রচার করছে। আবার লটারি জুয়ার টিকিট বিক্রি ও খেলার সময় শিশুদের ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এসময় ঘড়ির কাটা রাত ১০টা হলেই টিকিট ক্রেতারা বাড়িতে, অন্যের বাড়িতে অথবা বিভিন্ন দোকানের টিভি সেটের সামনে বসে পড়ছেন। এসময় মেলায় লটারি মঞ্চে শিশুদের দিয়ে টিকিট তুলিয়ে তা পচার করা হচ্ছে। টিকিটের জমা দেয়া অংশে লেখা ক্রেতার নাম ও ফোন নম্বর দেখে তাকে ডেকে পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। ক্রেতাদের সিংহভাগ পুরস্কার না পেয়ে হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। এতে অধিকাংশ ক্ষেত্রে সংসারে দাম্পত্য-কলহ সৃষ্টি হচ্ছে বলে ব্যাপক পচার রয়েছে। এবিষয়ে মৌলভি বাজার জেলার রামনগর থানার ছেংরা গ্রামে শ্রী রমাপদ কুমার দাসের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তাদের লটারির অনুমোদন রয়েছে। তবে কে দিয়েছে অনুমোদন তার কোনো বক্তব্য জানাননি তিনি। তবে এব্যাপারে স্থানীয়রা অবিলম্বে অবৈধ এই লটারি জুয়া বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। উল্লেখ্য মোহনপুর উপজেলার শ্যামপুর হাটে ২০১৯ সালে একই সময় স্থানীয় আনছার ক্লাবের উদ্যোগে মাসব্যাপী আয়োজিত কথিত বাসন্তী মেলার নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে চলে যান লটারির মালিক শ্রী রমাপদ কুমার দাস।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ৮
ফজর৪:০৯
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৪০
এশা৭:৫৯
সূর্যোদয় - ৫:৩১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৫
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৩৯১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.