নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রবিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৪, ৬ মাঘ ১৪২০, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৫
সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হতে দীর্ঘ লাইন
স্টাফ রিপোর্টার
আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নোটবুকে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দল থেকে যেসব মহিলা মনোনয়ন পায়নি সংরক্ষিত মহিলা আসনই এখন তাদের ভরসা। সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন পেতে এরই মধ্যে ২০ হাজার টাকা জমা দিয়ে মনোনয়ন কেনার পর এবার তারা দৌড়ঝাঁপ করছেন এমপি হতে।

গত ১৫ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন কেনা এবং জমা দেয়ার পর মনোনয়ন নিশ্চিত করতে এরই মধ্যে দলের সিনিয়র নেতাদের কাছে দৌড়ঝাঁপ করতে দেখা গেছে তাদের অনেককেই। কোনোভাবেই এ সুযোগ হাতছাড়া করতে চান না তারা।

এ তালিকায় আছেন ফরিদপুর-২ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য নিলুফার জাফর উল্যাহ, নারায়ণগঞ্জ-৪ থেকে সারাহ বেগম কবরী, ঢাকা-৪ থেকে (সাবেক সাংসদ) সানজিদা খানম ও কুষ্টিয়া-৪ থেকে সুলতানা তরুণ। এদের মধ্যে নিলুফার জাফর উল্যাহ সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন ক্রয় করেন।

মনোনয়ন দৌড়ে যারা রয়েছেন_ নবম সংসদে আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলীয় জোটের ৪০ জন সংরক্ষিত মহিলা এমপি ছিলেন। এদের মধ্যে কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম দশম সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে গেছেন। বাকিরা এবারও সংরক্ষিত মহিলা এমপি পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে জোরালো তৎপরতা চালাচ্ছেন। তবে বর্তমান স্পিকার ও নবম সংসদের সংরক্ষিত এমপি ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী আবারো সংরক্ষিত কোটায় মনোনয়ন পাচ্ছেন- এটা এক রকম নিশ্চিত হয়েই আছে। বিদায়ী সংসদের সংরক্ষিত ২ মহিলা এমপি ন্যাপের আমেনা আহমেদ এবং গণতন্ত্রী পার্টির রুবী রহমানও আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের মনোনয়নে আবারো এমপি নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে।

এছাড়া নবম সংসদের মহিলা এমপিদের মধ্যে রয়েছেন_ অধ্যক্ষ খাদিজা খাতুন শেফালী, অপু উকিল, আসমা জেরীন ঝুমু, আশরাফুন নেসা মোশারফ, আহমেদ নাজনীন সুলতানা নাজলী, এখিনব রাখাইন, এডভোকেট তারানা হালিম, চেমন আরা তৈয়ব, জাহানারা বেগম, অধ্যাপিকা জিন্নাতুন নেসা তালুকদার, জোবেদা খাতুন পারুল, নাজমা আক্তার, নূর আফরোজ আলী, নূর জাহান বেগম, পারভীন তালুকদার মায়া, ফরিদা রহমান, ফরিদুন নাহার লাইলী, তহুরা আলী, সালেহা মোশাররফ, অধ্যাপিকা মাহফুজা রহমান ম-ল রিমা, শেফালী মমতাজ, ফরিদা আখতার হীরা, রওশন জাহান সাথী, শওকত আরা বেগম, শাহিদা তারেক দীপ্তি, শাহিন মনোয়ারা হক, সাধনা হালদার, শাফিয়া খাতুন, সুলতানা বুলবুল, সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, ড. হামিদা বানু শোভা, ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা, ফজিলাতুন নেছা বাপ্পি, হাসিনা মান্নান, পিনু খান এবং এ এন মাহফুজা খাতুন বেবী মওদুদ আবারো দলীয় মনোনয়ন পেতে চাইছেন।

এদিকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনয়ন পেতে চাইছেন দশম সংসদ নির্বাচনের কুড়িগ্রাম-৩ আসনে পরাজিত উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মতি শিউলী। আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয়ায় তিনি দলীয় সিদ্ধান্তে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। একইভাবে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী এডভোকেট নুরজাহান মুক্তা, আখতার জাহান ও কৃষক লীগের উম্মে কুলসুম স্মৃতিও সংরক্ষিত মহিলা এমপি পদে মনোনয়ন চাইছেন। দলের বাইরে অন্যান্য পেশার নারী নেত্রীদের মধ্যে মনোনয়ন পেতে পারেন শহীদ জায়া শ্যামলী নাসরীন চৌধুরী, ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী, মহিলা পরিষদ সভাপতি আয়শা খানম, কর্মজীবী নারীর নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া রফিক বেবী, খেলাঘর সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপিকা পান্না কায়সার, আইনজ্ঞ ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর এবং অভিনেত্রী শমী কায়সারের মধ্যে কেউ কেউ।

এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা এমপি হতে দৌড়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক ভারতী নন্দী সরকার, নবম সংসদের পরাজিত মহাজোট প্রার্থী জান্নাত আরা হেনরী, দলের সভাপতিম-লীর সদস্য মরহুম আবদুস সামাদ আজাদের ছেলে আজিজুস সামাদ আজাদ ডনের স্ত্রী মমতাহিনা হাসনাত ঋতু, তাঁতী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সাধনা দাস গুপ্তা, মহিলা আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নেত্রী ফরিদা আখতার সাকী, অঞ্জলী সরকার, সাবিহা খাতুন, শাহীন লস্কর, মাহমুদা ক্রিক, নাসিমা মন্টু, এডভোকেট মোর্শেদা বেগম লিপি, কামরুন্নেছা মান্নান, সৈয়দা আফছানা, এডভোকেট আনোয়ারা শাহজাহান, রিটা কে আফজাল, রাজশাহীর নেত্রী মর্জিনা বেগম, সাতক্ষীরার রিফাত আমিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মিনারা আলম, ময়মনসিংহের ফাতেমা জোহরা রানী ও এডভোকেট হালিমা খাতুন, ফেনীর জাহানারা বেগম, ঝিনাইদহের নুরজাহান বেগম, রংপুরের শিরীন আকতার মুন্না, ফরিদপুরের আইভি মাসুদ, রাজবাড়ীর কামরুন্নেছা চৌধুরী লাভলী, গোপালগঞ্জের নাসিমা আকতার রুবেল, গাজীপুরের দিলরুবা বেগম, যশোরের ইসমত আরা সিদ্দিকী, পটুয়াখালীর কানিজ সুলতানা, যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় নেত্রী জাকিয়া হোসেন মনি, নাহারিন মুন্সী, শিরীনা নাহার লিপি, জিন্নাত আরা রোজী, আদিবা আনজুম মিতা, আফরোজা মনছুর লিপি, ডেইজি সারোয়ার, ইয়াসমিন রাব্বী গোর্কি, ঢাকা মহানগর নেত্রী শারমিন ওয়াদুদ নিপা, কুড়িগ্রামের নেত্রী মারসাদ আক্তার খুকি, পিরোজপুরে সেলিনা আখতার সেলু, হোসনে আরা বেগম, শরিয়তপুরের পারভীন হক সিকদার, ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মারুফা আখতার পপি, এডভোকেট মনজু নাজনীন, এডভোকেট উম্মে রাজিয়া কাজল, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও '৭৩ এ আততায়ীর গুলিতে নিহত সাবেক সংসদ সদস্য এএফএম নুরুল হক হাওলাদারের মেয়ে জোবায়দা হক প্রমুখ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত