নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১২ জানুয়ারি ২০১৮, ২৯ পৌষ ১৪২৪, ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৯
পারিবারিক চাপে দুর্নীতি
ছৈয়দ আন্ওয়ার
বউয়ের গয়না চাই, ছেলের গাড়ি চাই, থাকার জন্য বাড়ি চাই, পরকীয়ার নারী চাই এসব নিয়েই দুর্নীতির আবর্ত তৈরি হয়। এই ধরনের কথা বেরিয়ে এসেছে স্বয়ং দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে। কিন্তু বাস্তবতার নিরিক্ষে সেটা কতটা সঠিক তা বিবেচনার দাবি রাখে।

ইতিহাস সাক্ষ্য দেয়, পুরুষের দুর্নীতির পেছনে নারীর ইন্ধন থাকে। আবার কোনো কোনো নারীও দুর্নীতিতে দক্ষ থাকে। মীর জাফরের স্ত্রী মুন্নীবেগের দুর্নীতির কথা ইতিহাসের অংশ হয়ে আছে। আর ফিলিপাইনের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মার্কোসের স্ত্রী ইমেলদারের চার হাজার জোড়া জুতোর হিসাব তার

সীমাহীন বিলাসীতার প্রমাণ বহন করে আছে। সম্প্রতি জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের পতনের জন্য তার স্ত্রীর বিলাসী জীবনকে দায়ী করা হচ্ছে। স্ত্রীর চাপে বা প্রলোভনে দুর্নীতি অনিবার্য হয়ে ওঠার কাহিনী যেমন সত্য, তেমনই স্ত্রীকে ঢাল বানিয়ে অনৈতিক অর্থের পাহাড় গড়ার ইতিহাসও রয়েছে অনেক। এই দুই চরম সত্য অবৈধ অর্থ উপার্জনে একে অপরের পরিপূরক। যে কোনো একদিক থেকে অনৈতিকতা টেকসই হতে পারে না। দুইদিকের সম্মতিতেই বিলাসবহুল বাড়ি, আলিসান গাড়ি এবং আর্টিফিসিয়াল জীবন গড়ে ওঠে। সততার বীজ

রোপিত হয় পারিবারিক শিক্ষায়। প্রাতিষ্ঠানিক বা অধ্যয়নিক মাত্রায় সততা শেখানো যায় না। পরিবারে পিতা-মাতার স্বভাব ও আচরণ সন্তান সৎ বা অসৎ হওয়ার পেছনে গভীর ছাপ ফেলে। তাই অন্যের ঘাড়ে দোষ না চাপিয়ে উভয়কেই অনৈতিকতা বর্জন করা উচিত।

প্রসঙ্গত বলা যায়, সরকারি কর্মকর্তারা তার পরিবারে সততার আবহ তৈরি করতে যথার্থ ভূমিকা রাখতে পারেন। তার আচরণে, কথা ও কাজের ধারায় পরিবারের সদস্যরা জীবনযাপনে অভ্যস্ত হয়ে ওঠে। তার দর্প প্রকাশে সদস্যরা আর্থিকভাবে ঔদ্ধত্য হয়ে উঠতে পারে। তার মৃয়মানতায় সদস্যরা হতে পারে বিনম্র এবং সৎ।

পুনশ্চ ঃ মানুষ প্রকৃতিগতভাবে সৎ। জন্মগত বা জিনগতভাবে কেউ অসৎ হয় না। কিন্তু পারিবারিক অনুশাসনের অভাবে প্রাকৃতিক এ সমীকরণ ভেঙে যায়। পারিবারিক চাপে গৃহকর্তা যেমন অনেক সময় দুর্নীতিতে বাধ্য হয়। তেমনই আবার কখনো কখনো গৃহকর্তার অবৈধ উপার্জন পরিবারের সদস্যদেরকে ঔদ্ধত্য করে তোলে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজুলাই - ১৯
ফজর৩:৫৭
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫০
এশা৮:১২
সূর্যোদয় - ৫:২২সূর্যাস্ত - ০৬:৪৫
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৮৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.